About Me

header ads

ভাড়া নিয়ে জটের জেরে রাজধানীতে পরিবহন ধর্মঘট!

ডেস্কও ওয়েব ডেস্কঃ ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলায় সোমবার সকাল থেকে হঠাৎ পরিবহন শ্রমিক এবং মালিকরা ধর্মঘট শুরু করেছেন। ফলস্বরূপ এখনো পর্যন্ত কোনও যানবাহন অন্য মহকুমায় যায়নি। তারা একইসাথে পুলিশের নৃশংসতার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছে এবং যানবাহনের ভাড়া বৃদ্ধির দাবি জানাচ্ছে।
উল্লেখ্য যে, করোনা প্রতিরোধে লকডাউনে ভীষণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে গাড়িচালক, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী, তদুপরি দৈনিক যারা উপার্জন করেন তাঁরা! জীবন-জীবিকায় টান পড়েছে বেশি মধ্যবিত্তেরই।
এদিকে, লকডাউনের সময় পরিবহন শ্রমিকরা পুরোপুরি বেকার ছিলেন। এ অবস্থায় তাঁরা ভয়ানকভাবে অর্থনৈতিক ক্ষতির সম্মুখীন হন। আনলক প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার পর তাঁরা যান নিয়ে বেরিয়েছিলেন কিন্তু করোনা মোকাবিলার খাতিরে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার জন্যে সরকার যাত্রীদের গাড়িতে উঠানোর ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্বের নীতিমালা চাপিয়ে দেয়।
গাড়ির মালিকরা বলেন, গাড়িতে পুরো ক্ষমতার পরিবর্তে অর্ধেক যাত্রী বহন করছেন সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী। এ অবস্থায় কোনও চালক বা মালিক দুই-তিনজন অতিরিক্ত যাত্রী চাপালে তাঁদের জরিমানা করা হচ্ছে। জরিমানার অংকও অনেক বেশি! মালিক-চালকদের মতে তাঁরা সরকারের কাছে ভাড়া বাড়ানোর দাবি করেন, কিন্তু সরকার সে দিকে প্রস্তুত নয়। অন্যদিকে আবার এদিকে চালকরা অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করলে পুলিশ তাঁদের জরিমানা করছে। এ অবস্থায় তাঁরা পড়েছেন বিপাকে। প্রকৃতপক্ষে এই মানুষগুলো বারবারই জানাচ্ছেন, তাঁরা, তাঁদের পরিবার বাঁচবে কিভাবে, যেখানে অর্ধেক যাত্রী উঠিয়ে আয়ও হচ্ছে অর্ধেক। মাঝে মাঝেই চলে যাচ্ছে জরিমানা।
উল্লেখ্য যে, রবিবার উদয়পুর-আগরতলা রুটের বাস মালিক, চালক ও সহ চালকরা পুলিশি হয়রানির প্রতিবাদে এবং ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে সকল বাস চলাচল স্থগিত করে। সোমবার অন্যান্য পরিবহণ শ্রমিকরাও প্রতিবাদীদের সাথে যোগ দেন এবং অন্যান্য রুটেও চলাচল স্থগিত করে দেন।
উল্লেখ্য যে, আগরতলা থেকে আজ কোনও যাত্রী বাস বা অন্যান্য যানবাহনেও অন্য মহকুমায় যেতে পারেননি। শিক্ষক এবং অফিসের কর্মীদের আজ বন্ধ করতে হয়েছে স্কুল এবং অফিস। বাস মালিকরা স্পষ্ট জানিয়েছেন, করোনা সংক্রমণজনিত কারণে বাসে ৫০ শতাংশের বেশি যাত্রী নেয়া যাচ্ছে না। ৫০ যাত্রী নিয়ে বাস চালাতে হলে দ্বিগুণ ভাড়া গুণতে হবে বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন। রাজ্য সরকার এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ না নিলে বাস চলাচল অনির্দিষ্টকালের জন্যে বন্ধ থাকবে বলে স্পষ্ট জানান তাঁরা। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য