About Me

header ads

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিবাদে সাংবাদিকদের কালো ব্যাজ পরিধান!

ডেস্কও ওয়েব ডেস্কঃ আজ ত্রিপুরার সাংবাদিকরা কালো ব্যাজ পরে রাজ্য জুড়ে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানান।

স্মরণীয় যে, গত ১১ সেপ্টেম্বর ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব সাবরুমে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন। সেখানে তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেছিলেন, "কিছু সংবাদপত্র কোভিড -১৯ (Covid-19) মেডিকেল ম্যানেজমেন্ট সম্পর্কিত সংবাদ প্রকাশের বিষয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। ইতিহাস তাদের ক্ষমা করবে না। আমি তাদের ক্ষমা করব না"।

মন্ত্রীর হুমকি, কিছু মিডিয়া হাউস এবং স্থানীয় সংবাদপত্র গুজব ছড়িয়ে মানুষকে ভয় দেখানোর কাজ করছে! তারা প্রচার করছে ত্রিপুরায় মারাত্মক হারে করোনার গণ সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে। তাঁদের কাউকে ক্ষমা করা হবে না!

সাংবাদিক সংস্থা মন্ত্রীর বক্তব্যকে হুমকি হিসেবেই বিবেচনা করেছে। ফলে এই বক্তব্যের নিন্দা জানায়। শুধু সাংবাদিক সংগঠনই নয়, অন্যান্য রাজনৈতিক দলও বিপ্লবের এই বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছে। ত্রিপুরার অ-রাজনৈতিক সাংবাদিক সংগঠন অ্যাসেম্বলি অফ জার্নালিস্ট (The Assembly of Journalist, a non-political journalist body of Tripura) মুখ্যমন্ত্রীকে একটি আলটিমেটাম দিয়ে তাঁর এমন কুরুচিকর আর হুমকি বক্তব্য প্রত্যাহারের চেষ্টা করে। তদুপরি Assembly of Journalist ত্রিপুরার রাজ্যপাল আর কে বইসের কাছে একটি স্মারকলিপিও জমা দেয়।

প্রবীণ সাংবাদিক এবং সন্দ্যান পত্রিকার সম্পাদক সুবল দে জানিয়েছেন, রাজ্যপালের সাথে সাক্ষাতের সময় তিনি তাদের আশ্বাস দিয়ে বলেছিলেন যে এই বিষয়ে তিনি মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলবেন। তবে এখনও পর্যন্ত রাজ্যপাল মুখ্যমন্ত্রীর সাথে এবিষয়ে কথা বলেছেন নাকি বলেননি তা জানা যায়নি! অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রীও তাঁর বক্তব্য প্রত্যাহার করেননি।

সুবল দে বলেন, ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতেই তাঁরা মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মহাত্মা গান্ধীর জন্মজয়ন্তীর দিন মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের বিরুদ্ধে কালো ব্যাজ পরে প্রতিবাদ করছেন।

আজ আগরতলা প্রেসক্লাবের সামনে রাজধানীর সব সাংবাদিক একত্রিত হয়ে কালো ব্যাজ পরেন। সুবল দে আরো বলেন, মত প্রকাশের স্বাধীনতা, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ত্রিপুরায় নেই। প্রবীণ সাংবাদিক জয়ন্ত ভট্টাচার্য বলেন, সাংবাদিক এভাবে বাঁচতে পারবেন না। সরকার মনে করে যে তারা তাদের অর্ডার বহনকারী। তিনি বলেন, আজ একটি আন্দোলন সবে শুরু হয়েছে, সরকার যদি তাদের আচরণ পরিবর্তন না করে তবে তাঁদের আন্দোলন আরও জোরদার হবে।

বলা বাহুল্য, মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব এরপরও অর্থাৎ ১৫ সেপ্টেম্বর আরো কয়েকটি কথা বলেছেন মিডিয়ার বিপক্ষে। তিনি বলেন, 'মিডিয়ার উদ্ভট প্রচার বাঁদরকে বাঘ বানিয়ে ফেলে এবং বাঘকে বাঁদর! তাঁর কথায়, মিডিয়ার নিজেদেরও সমালোচনা করা উচিৎ! আত্মসমালোচনা তাঁদেরও করা উচিৎ! 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য