About Me

header ads

কথা রাখেননি মুখ্যমন্ত্রী, আমরণ অনশনের পথে ১০৩২৩!

ডেস্কও ওয়েব ডেস্কঃ ত্রিপুরার বরখাস্ত হওয়া শিক্ষকরা সরকারকে দাবি পূরণে চরমসীমা বেঁধে দিল। জানালো, না হলে তাঁরা আমরণ অমশনে বসবেন।
শিক্ষকেরা জানান, ৩ নভেম্বরের মধ্যে ত্রিপুরার বিজেপি সরকার বরখাস্ত হওয়া শিক্ষকদের পুনর্নিয়োগের ঘোষণা না করলে তাঁরা ১০ নভেম্বর থেকে অনশন শুরু করবেন। শুধু শিক্ষকেরাই নন, অনশনে সামিল হবে তাঁদের পরিবারের সদস্যরাও। বরখাস্ত হওয়া শিক্ষকদের নেতা প্রশান্ত দেববর্মা এই কথা জানান।
মঙ্গলবার খুমুলুংয়ের নোয়াই প্রেক্ষাগৃহে তাঁরা সভায় মিলিত হয়েছিলেন।১০৩২৩ জন বরখাস্ত হওয়া শিক্ষকের ন্যায়বিচারের দাবিতে সেই সভার আয়োজন করা হয়। প্রশান্তবাবু জানান, ৫০০ শিক্ষক সভায় হাজির ছিলেন। সেখানেই ১০ নভেম্বর থেকে অনশন শুরুর সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
প্রসঙ্গত উল্লেখ্য ২০১০-২০১৪ সালের মধ্যে নিযুক্ত হওয়া ১০৩২৩ জন শিক্ষকের নিয়োগ বেআইনি বলে ঘোষণা করেছিল সুপ্রিম কোর্ট। তাই এ বছর ৩১ মার্চ তাঁরা বরখাস্ত হন। সেই থেকেই তাঁরা কাজ ফেরানোর দাবিতে আন্দোলন করছেন। ২৩ সেপ্টেম্বর তাঁরা সচিবালয়ের উদ্দেশে প্রতিবাদ মিছিলও করেছিলেন। তখন পুলিশ তাঁদের থামাতে লাঠি চালায়, জল কামান ব্যবহার করে।
শেষ পর্যন্ত শিক্ষকদের তিনটি সংগঠনের ৬ জন প্রতিনিধি ৩ অক্টোবর রাতে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের সঙ্গে দেখা করেন। প্রশান্তবাবু জানান, সেই সাক্ষাতের পরে ৩ নভেম্বর এক মাস পূর্ণ হচ্ছে। এখনও সরকার কোনও ব্যবস্থা নিল না। মুখ্যমন্ত্রী এক মাসের মধ্যে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা দিয়েছিলেন। কিন্তু এখনও শিক্ষকদের পুনর্নিয়োগের ক্ষেত্রে সরকারের কোনও উদ্যোগই চোখে পড়েনি। তাই শিক্ষকেরা অনির্দিষ্টকাল অপেক্ষা করতে পারবেন না।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য