About Me

header ads

নির্মমতার জ্বলন্ত নিদর্শন, রাজ্যে গণধোলাইয়ে মৃত্যু এক ব্যক্তির!

ডেস্কও ওয়েব ডেস্কঃ গনধোলাইয়ে প্রাণ দিতে হলো এক অসহায় ব্যক্তিকে। ঘটনাটি ঘটেছে বড়জলা মহানক্লাব সংলগ্ন এলাকায়। মৃত ব্যক্তির নাম অরুণ কুমার দাস(৪০)। বাড়ি বড়জলা টি আর টি সি সংলগ্ন এলাকায়। যা মানবতাকে লঙ্ঘন করে দিয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১০ অক্টোবর রাজধানীর বড়জালা দিয়ে এক ব্যক্তি বাইসাইকেল করে কাজ থেকে সন্ধ্যায় বাড়ি ফিরছিলেন। কিন্তু বাড়ি ফেরার সময় সেই ব্যক্তির চলন্ত অবস্থায় আচমকা রাস্তার পাশে পড়ে যায়। রাস্তার পাশে ছিল এক মহিলা এবং শিশু। কিন্তু এলাকার কিছু অত্যুৎসাহি মানুষ কিছু বুঝে উঠার আগেই সে অসহায় অরুণ দাসকে মদমত্ত অবস্থায় আছে ভেবে মারধোর করতে শুরু করে। এমনকি স্থানীয় প্রতিমা সূত্রধর নামে এক দাপুটে মহিলা সেই অসহায় অরুণের মাথায় ইট দিয়ে চাপা দেয় বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

ঘটনাস্থলে অরুন দাস গুরুতরভাবে আহত হয়। অরুণের মাথার হাড় ভেঙে যায়। রক্ত জমাট বাঁধে মাথায়। অবশেষে আহত অরুন দাসকে নিয়ে যাওয়া হয় আইএলএস হাসপাতালে। কিন্তু শেষ রক্ষা আর হয়নি অরুণের। বুধবার সকালে আহত অরুণ আইএলএস হাসপাতালে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ।

পুলিশ জানায়, ঘটনা পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিমার সূত্রধরে বিরুদ্ধে একটি নোটিশ দাখিল করা হয়েছে। এবং মৃতের পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মামলাও করা হয়েছে। তবে অভিযুক্তকে এখনো আটক করা হয়নি বলে জানায় পুলিশ। ঘটনার তদন্ত চলছে। অভিযুক্তরা পুলিশের নাগালের বাইরে হওয়াতে এলাকাবাসী রফা দফার গন্ধ পাচ্ছে।

বুধবার সকালে চিকিৎসাধীন অরুণের মৃত্যুর খবরটি বড়জলা এলাকায় ছড়িয়ে পড়তেই এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ বিস্তার লাভ করছে। যদি অভিযুক্তদের পুলিশ শনাক্ত না করে এবং আইনত ভাবে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহণ না করে তাহলে এলাকায় হয়তো যেকোনো মুহূর্তে চাঞ্চল্য দেখা দিতে পারে বলে অভিমত অভিজ্ঞ মহলের। কারন এ ধরনের অমানবিক ঘটনা রাজ্যে বিরল।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য