About Me

header ads

রাজ্যে ফের আক্রান্ত দুই সাংবাদিক!

ডেস্কও ওয়েব ডেস্কঃ ত্রিপুরায় আবারও আক্রমণের মুখে পড়লেন সাংবাদিকরা। শুক্রবার সুমন নাগ এবং সমীর দেবনাথ নামে দুই সাংবাদিককে দক্ষিণ ত্রিপুরা জেলার বারপাথারি এলাকায় আক্রমণ করা হয়।

অভিযোগ, বিজেপি কর্মী ও সমর্থকরা তাঁদের আক্রমণ করে। সাংবাদিকদের ক্যামেরা ছিনিয়ে নেওয়া হয় এবং তাঁদের মারধর করা হয়েছে। সুমন নাগ রাজ্যের বাংলা দৈনিক 'প্রতিবাদী কলম' পত্রিকার সাংবাদিক এবং সমীর দেবনাথ স্থানীয় কেবল চ্যানেল দুরন্ত টিভিতে কাজ করছেন। এই নিয়ে গত দুই সপ্তাহের মধ্যে ত্রিপুরায় ৭ জন সাংবাদিকের উপরে চলল আক্রমণ

ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, দুই সাংবাদিক বিলোনিয়া মহকুমার ভাতখোলা যাচ্ছিলেন সংবাদ সংগ্রহের জন্য। পথে তাঁরা দেখেন কিছু দুষ্কৃতী বারপাথারি বাজারের একটি দোকানে হামলা চালাচ্ছে। সাংবাদিকরা বিষয়টি জানতে সেখানে সেখানে গেলে হামলাকারীরা এক সাংবাদিকের মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে তা ভেঙে দেয়। এছাড়া দু'জনকে মারধর করা এবং হত্যার হুমকি দেওয়া হয়।

এই ঘটনায় চারজনের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। দক্ষিণ ত্রিপুরার জেলাশাসক দেবপ্রিয় বর্ধনকে একটি স্মারকলিপি জমা দেওয়া হয়েছে। সাংবাদিকরা দোষীদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। জেলাশাসক বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন।

সাংবাদিকদের সুরক্ষার জন্য এবং তাদের অধিকারের জন্য লড়াই করা সাংবাদিকদের শীর্ষ সংগঠন ত্রিপুরা অ্যাসেম্বলি অব জার্নালিস্টস এই হামলার তীব্র নিন্দা করেছে। সম্প্রতি সাংবাদিকদের উপর হামলার সংখ্যা ব্যাপকভাবে বেড়েছে। আম্বাসায় সন্দন পত্রিকার সাংবাদিক পরাশর বিশ্বাস যে রাতে কোভিড কেয়ার সেন্টার থেকে মুক্তি পান সেই রাতেই তাঁর উপরে আক্রমণ করা হয়েছিল। গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়ে। এখনও পর্যন্ত পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

সম্প্রতি দক্ষিণ ত্রিপুরার একটি সরকারী অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী গণমাধ্যমকে সরাসরি হুমকি দিয়েছেন। সাংবাদিকরা মন্তব্যটি প্রত্যাহার করার দাবি জানিয়েছেন। তাঁরা রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করেও ঘটনাটি জানান। সাংবাদিকরা জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের পরে তাঁদের উপরে হামলা আরও বাড়ার আশঙ্কা।

 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য