About Me

header ads

আজও সাংবাদিক শান্তনু ভৌমিকের হত্যার বিচার পেল না পরিবার!

ডেস্কও ওয়েব ডেস্কঃ সংবাদ সংগ্রহে গিয়ে বাধার মুখে পড়েছিলেন ত্রিপুরার দিনরাত চ্যানেলের সাংবাদিক শান্তনু ভৌমিক। ঘটনাস্থলেই তাঁকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপায় আইপিএফটি সমর্থকরা। রাজধানী আগরতলা মেডিকেল কলেজে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। ২৮ বছরের তরতাজা যুবকের প্রাণ ঝরে গেল। ২০১৭ সালের এই ঘটনা!

আজ নিহত সাংবাদিক শান্তনু ভৌমিকের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী। রবিবার ত্রিপুরার বিভিন্ন স্থানে শান্তবুর তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী পালন করা হয়েছে। বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠন, সংস্থা দিবসটি পালন করে। আজ সকালে বাম ছাত্র সংগঠন এসএফআই এবং বাম যুব সংগঠন ডিওয়াইএফআই আগরতলার প্যারাডাইজ চৌমুহনীতে শান্তনুকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করে।

একটি সংগঠন নাম আমার শান্তনু আজ সন্ধ্যায় স্বর্গ চৌমুহনীতে মোমবাতি ভিজিল অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। শান্তনু ভৌমিককে এই আজকের দিনে ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ সালে হত্যা করা হয়েছিল। শান্তনুর মৃত্যুর পর ত্রিপুরার আরেক সাংবাদিককে হত্যা করা হয়েছিল। তিনি সুদীপ দত্ত ভৌমিক। তাঁকে মারা হয় ২১ নভেম্বর ২০১৭ সালে।

ত্রিপুরার ২০১৮ সালের বিধানসভা নির্বাচনের সময় দুই সাংবাদিক হত্যাকাণ্ড ছিল একটি প্রধান বিষয়। দুই সাংবাদিক হত্যা মামলায় সিবিআই তদন্তের আদেশ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় বিজেপি। সরকার গঠনের পর বিজেপি সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে তবে এখনও গত আড়াই বছরে সিবিআই চার্জশিট জমা করতে পারে নি।

খুনিরা এখনও নির্দ্বিধায় চলাফেরা করে। রাজ্য পুলিশ ঘটনায় যাদের গ্রেপ্তার করেছিল, তাঁরা আদালত থেকে জামিনও পেয়ে গেছে। খুনের ৩ বছর হয়ে গেল অথচ কোন সুরাহা হলো না। একমাত্র ছেলে শান্তনুর মৃত্যু ঘটনার পর থেকেই মা পাপরি নাগ এবং ছোট বোন মুন্নি এখনও বিচারের অপেক্ষায় বসে রয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা সেদিন জানিয়েছিল, শান্তনু মান্দাই এলাকায় আইপিএফটির সড়ক অবরোধ কর্মসূচির সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়েছিলেন। এ সময় পুলিশের সামনে থেকে তাঁকে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে গিয়ে আন্দোলনকারীরা বাঁশ- লোহার রড দিয়ে বেধড়ক মারধর করে। পরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে শান্তনুকে আহত করে। রক্তাক্ত অবস্থায় পুলিশ শান্তনুকে উদ্ধার করে আগরতলায় জিবি হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে স্থানীয় সময় বিকেল ৫টা ১০ মিনিটে কর্তব্যরত চিকিৎসা কর্মকর্তারা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য