About Me

header ads

করোনা পরিস্থিতি নিয়ে ‘অপপ্রচার’ চালানো সংবাদমাধ্যমকে ক্ষমা করবেন না: মুখ্যমন্ত্রী


ডেস্কও ওয়েব ডেস্কঃ ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব এবার গণমাধ্যমকে একহাত নেওয়ার হুমকি দিয়েছেন। বিপ্লব কুমার দেব শুক্রবার বিকেলে বিশেষ অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে বা SEZ-এর ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। সেই সময় তিনি বলেন, "কিছু সংবাদপত্র কোভিড-১৯ মেডিকেল ম্যানেজমেন্ট সম্পর্কিত সংবাদ প্রকাশের বিষয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। ইতিহাস তাদের ক্ষমা করবে না। আমি তাদেরও ক্ষমা করব না"।
তাঁর হুমকি, কিছু মিডিয়া হাউস এবং স্থানীয় সংবাদপত্র রয়েছে যারা গুজব ছড়িয়ে মানুষকে ভয় দেখাচ্ছে। বলছে, ত্রিপুরায় মারাত্মক হারে গণ সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে করোনার। তাদের ক্ষমা করা হবে না। রাজ্যের স্বাস্থ্য খাতে অব্যবস্থা নিয়ে গণমাধ্যমে প্রচুর অভিযোগ আসছে। রাজ্য মিডিয়া কোভিড পরিস্থিতি সামাল দিতে ব্যর্থতার জন্য সরকারের তীব্র সমালোচনা করছে।
সংবাদমাধ্যমের খবরের ভিত্তিতে ইতিমধ্যে ত্রিপুরা হাইকোর্ট স্বতপ্রণোদিত মামাল রুজু করেছে। গত কাল শুনানিতে, হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির বেঞ্চ রাজ্য সরকারের কাছে সব রিপোর্ট ও অভিযোগের জবাব এক সপ্তাহের মধ্যে চেয়ে পাঠিয়েছে।
সেই প্রেক্ষিতেই ক্ষিপ্ত মুখ্যমন্ত্রী সংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে উগরে দিলেন ক্ষোভ। কেন্দ্রীয় বাণিজ্যমন্ত্রী পীযুষ গোয়েল আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সাব্রুম বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। বলা হচ্ছে, ৭৫০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হবে এই SEZ-এ। পাঁচ হাজার বেকার যুবককে চাকরীর সংস্থান হবে বলেও রাজ্য সরকারের দাবি। কর্মসূচিতে হাজির ছিলেন ত্রিপুরা শিল্প উন্নয়ন কর্পোরেশনের (TIDC) চেয়ারম্যান টিঙ্কু রায়, বিধায়ক শঙ্কর রায় প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব বলেছেন যে আগামী দিনে ত্রিপুরা একটি শিল্পোন্নত রাজ্যে পরিণত হবে। বাঁশ, বেত, টেক্সটাইল ইত্যাদি বিভিন্ন শিল্প এখানে স্থাপন করা হলে বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান দেওয়া যাবে। এসইজেড (বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল) ত্রিপুরার অর্থনৈতিক বৃদ্ধি ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির নতুন পথ উন্মুক্ত করবে।
ত্রিপুরার ব্যবসায়িক ক্ষেত্রগুলি বিশেষত এসইজেড দ্বারা উপকৃত হবে এবং রাজ্যের উন্নয়নে সাব্রুম মূল ভূমিকা পালন করবে। দেব বলেন, "আমি সাব্রুমে এসইজেড অনুমোদনের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী শ্রী পীযূষ গোয়েলকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই। তিনি COVID19 মহামারীর মধ্যে অক্লান্ত পরিশ্রম ও এসইজেড উন্নয়নমূলক কাজে অগ্রগতি করার জন্য পুরো প্রশাসনকে অভিনন্দন জানান।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য