About Me

header ads

মুখ্যমন্ত্রীর কাছে ইচ্ছামৃত্যুর আবেদন জানালেন রাজ্যের এক ব্যাক্তি!


ডেস্কও ওয়েব ডেস্কঃ অমল গোপ নামে এক যুবক রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব কে চিঠি লিখে ইচ্ছামৃত্যুর অনুমতি চাইলেন। অমল গোপ ধলাই জেলার কমলপুর মহকুমার ফুলছড়ি গ্রামের বাসিন্দা। ১৫ ই জুলাই তিনি মুখ্যমন্ত্রীকে একটি চিঠি লিখে ইচ্ছামৃত্যুর সেই আবেদন জানিয়েছিলেন। মুখ্যমন্ত্রীর দফতর সেই চিঠির প্রাপ্তিস্বীকার করেছে।
এর আগে তিনি জুনে মুখ্যমন্ত্রীকে আরও একটি চিঠি লিখেছিলেন যেখানে তিনি খাদ্যমন্ত্রী মনোজ কান্তি দেবের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিলেন। তাঁর অভিযোগ, দুর্বৃত্তরা তাঁকে এবং তার পরিবারকে আক্রমণ করে। তারা তার ব্যবসা বন্ধ করে দেয় এবং বাড়ির জল সরবরাহের লাইনটি কেটে দেয়। তাঁর অভিযোগ ছিল, খাদ্যমন্ত্রী মনোজ কান্তি দেবের নির্দেশেই তাঁর সঙ্গে এ সব ঘটেছে।
উল্লেখযোগ্য যে মন্ত্রী মনোজ কান্তি দেবও কমলপুরের বাসিন্দা এবং তিনি কমলপুর থেকে বিধানসভা নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন। অমল গোপ গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তিনি তার দুর্ভোগের বিষয় নিয়ে সাংসদ প্রতিমা ভৌমিক এবং সাংসদ রেবতী ত্রিপুরা এবং মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে সব কিছু জানিয়েছেন। কিন্তু লাভ তো হয়নি, উল্টে তাদের সব জানানোর পরে দুর্বৃত্তরা আবারও তাঁর ও তাঁর পরিবারের উপর আক্রমণ শুরু করে।
মুখ্যমন্ত্রীকে তার সাম্প্রতিক চিঠিতে অমল গোপ বলেছিলেন যে মুখ্যমন্ত্রীর উচিত হয় মন্ত্রীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া বা অমলবাবুকে ইচ্ছামৃত্যুর অনুমতি দেওয়া উচিত। মন্ত্রী মনোজ কান্তি দেব বেশ কয়েকটি অবৈধ কাজে জড়িত বলেও অভিযোগ করেন তিনি। অমলবাবুর অভিযোগ, এইসব অবৈধ কর্মকাণ্ডের বিরোধিতা করেছেন বলেই মন্ত্রী তাঁর পিছনে দুর্বৃত্তদের লেলিয়ে দিয়েছেন।
অমল গোপের অভিযোগ সম্পর্কে মন্ত্রী মনোজ কান্তি দেবকে প্রশ্ন করা হয়েছিল। তিনি দাবি করেন, অভিযোগগুলি ভিত্তিহীন। কমলপুরের লোকেরা জানেন যে তিনি কেমন মানুষ। মন্ত্রী আরও জানান, কমলপুর থেকে আগরতলায় আসার সময় অমল গোপ তাঁর কোয়ার্টারে থাকতেন। তিনি গতবার দুর্গাপূজার সময় অমল গোপের ছেলের জামাকাপড় কিনে দিতে আড়াই হাজার টাকাও দিয়েছিলেন। কিন্তু পরে অমল ঋণের আবেদন প্রত্যাখ্যাত হলে সে রেগে গিয়ে সে এই সব বলছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য