About Me

header ads

রাজ্য জুড়ে পালিত ত্রিপুরার শেষ রাজা বীর বিক্রমের ১১২ তম জন্মজয়ন্তী!


ডেস্কও ওয়েব ডেস্কঃ আজ ত্রিপুরায় পালিত হচ্ছে, শেষ মহারাজা বীর বিক্রম কিশোর মাণিক্যের ১১২ তম জন্মদিন। সেই উপলক্ষে রাজ্য সরকার আগরতলার বেনুবন বিহারে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। সেখানে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লবকুমার দেব ও উপ মুখ্যমন্ত্রী জীষ্ণু দেববর্মণ বীর বিক্রমের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানান।
মহারাজ বীর বিক্রম ত্রিপুরার শেষ রাজা ছিলেন। ১৯০৮ সালে তাঁর জন্ম। ১৯২৩ থেকে তিনি ত্রিপুরার রাজা ছিলেন। ১৯৪৭ সালের ১৭ মে, মাত্র ৩৯ বছর বয়সে তাঁর মৃত্যু হয়। তার আগেই ২৮ এপ্রিল রাজকীয় ঘোষণাপত্রের মাধ্যমে তিনি ত্রিপুরাকে ভারতের অঙ্গরাজ্য হিসেবে ঘোষণা করেন।
ব্যারিস্টার গিরিজা শঙ্কর গুহকে গণপরিষদে রাজ্যের প্রতিনিধি হিসেবেও নির্বাচিত করে যান তিনি। এর পরেই ত্রিপুরা ১৯৪৯ সালে ভারতের অঙ্গ হয়ে যায়। ত্রিপুরায় সরকার গড়ার পরে গত বছর বিজেপি ঘোষণা করে বীর বিক্রমের জন্মদিন রাজ্যে ছুটি থাকবে। আগরতলা বিমানবন্দরের নামও বীর বিক্রম মাণিক্য বিমানবন্দর করে দেওয়া হয়। তাঁর নামে রয়েছে স্টেডিয়াম, কলেজ, রাজ্য বিশ্ববিদ্যালয়।
বিজেপি-আইপিএফটি জোট সরকার শেষ মহারাজের ঐতিহ্য রক্ষায় খুবই উৎসাহী। বিজেপির রাজ্য সভাপতি মানিক সাদা বিজ্ঞপ্তি জারি করে বলেন, ১৯ অগস্ট দলের সব কর্মী বীর বিক্রমের জন্মদিন পালন করবেন। বেনুবন বিহারে বীর বিক্রমের জন্মদিন পালনের অনুষ্ঠানে বিপ্লব দেব বলেন, কঠোর শ্রম, আধুনিক চিন্তার মাধ্যমে রাজ্য ও জনকল্যাণে তাঁর অবদানের জন্য ত্রিপুরাবাসী বীর বিক্রমের কাছে সদা কৃতজ্ঞ থাকবে। তিনি আধুনিক ত্রিপুরার স্বপ্নদ্রষ্টা ছিলেন। এ দিন কংগ্রেস ভবনেও কংগ্রেসের তরফে মহারাজ বীর বিক্রমকে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য