About Me

header ads

বাম সংঘটনের ভারত বাঁচাও মানুষ বাঁচাও কর্মসূচি!


ডেস্কও ওয়েব ডেস্কঃ শ্রমজীবী পরিবারদের ৬ মাস ৭,৫০০ টাকা করে নগদ প্রদান করা, বেসরকারি এবং সরকারি প্রতিষ্ঠান থেকে কর্মী ছাঁটাই বন্ধ করা সহ ৭ দফা দাবিতে রবিবার মেলার মাঠস্থিত পশ্চিম জেলা কমিটি অফিসের সামনে সি আই টি ইউ, এ আই কে এস, জি এম পি এবং টি কে এম ইউ পক্ষ থেকে যৌথভাবে ভারত বাঁচাও মানুষ বাঁচাও কর্মসূচি পালন করা হয়।
এদিন বিক্ষোভ কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন জি এম পি নেতা জিতেন্দ্র চৌধুরী। তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, বিজেপি দল দেশের মানুষের সংবিধানিক অধিকার বিপথে পরিচালিত করছে, সমস্ত সম্পদ বিদেশিদের এবং দেশের পুঁজিবাদীদের হাতে তুলে দিতে চাইছে। ভাইরাসের আড়ালে দেশের মধ্যে আর্থিক পরাধীনতার দিকে ঠেলে দিচ্ছে। তাই দেশকে বাঁচাতে বিভিন্ন সংগঠন যৌথভাবে এই কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এর মূল উদ্দেশ্য হলো ভারত বাঁচাও, দেশ বাঁচাও, মানুষ বাঁচাও, কর্পোরেট হাটাও এবং সর্বোপরি বিজেপি'কে হাটানো শপথ নিয়ে দেশব্যাপী এই আন্দোলন। কিন্তু এই আন্দোলনে পুলিশ দ্বারা মাতব্বরি করা হচ্ছে। শাসক দলের জন্য একরকম আইন, আর বিরোধীদের জন্য পুরোপুরি ব্যতিক্রম। এটা কাপুরুষদের দুর্বলতা বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।
এদিকে সিআইটিইউ রাজ্য সভাপতি মানিক দে জানান দেশব্যাপী আন্দোলন চলবে। যতদিন না পর্যন্ত দাবিগুলি বাস্তবায়িত হবে, ততদিন সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। মানুষকে শেষ করে দিয়ে বিক্রম বাজী করা যায় না বলে অভিমত ব্যক্ত করেন। তবে তিনি এখানে হুশিয়ারি দিয়ে বলেন সরকার যতদিন না দাবিগুলো মেনে নিচ্ছে ততদিন আন্দোলন অব্যাহত থাকবে পুলিশ দিয়ে আন্দোলন রুখা যাবে না। পরে এদিন পুলিশ আন্দোলন প্রত্যাহার করার জন্য সংগঠন গুলির নেতাদের কাছে একাধিকবার জানানো হলো, নেতৃবৃন্দ এবং কর্মীরা আন্দোলন প্রত্যাহার না করাতে পুলিশ কয়েক শতাধিক কর্মীদের গ্রেফতার করে পুলিশ কমপ্লেক্স স্থিত মাঠে নিয়ে যায়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য