About Me

header ads

রাজ্য শিক্ষা দফতরের খোলা জায়গায় ক্লাস শুরুর সিদ্ধান্তে রাজ্যজুড়ে প্রতিবাদ!


ডেস্কও ওয়েব ডেস্কঃ উন্মুক্ত পরিবেশে কম ছড়াচ্ছে করোনার জীবাণু। তাই খোলা জায়গায় ক্লাস নেওয়া শুরু করে ত্রিপুরায় ফের পঠনপাঠন শুরু করার কথা ভাবছে রাজ্য শিক্ষা দফতর। শিক্ষা দফতরের তরফে এ দিন একটি বিবৃতিতে বলা হয়, খোলা হাওয়ায়, উন্মুক্ত পরিবেশে জীবাণু ছড়ানোর ক্ষমতা হ্রাস পেয়েছে। তাই রাজ্যে স্কুলগুলির চত্বরে থাকা উন্মুক্ত এলাকায় পঠনপাঠন শুরু করা যেতে পারে। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছে খোলা হাওয়ায় জীবাণু সংক্রমণের হার অত্যন্ত কম।
প্রশ্ন উঠেছে খোলা হাওয়ায় যদি করোনা না ছড়ায় তবে ভারত সহ বিশ্বের এতগুলি দেশ লকডাউন কেন পালন করছে? কেনই বা মানুষকে গৃহবন্দি থাকতে বলা হয়েছে? ত্রিপুরাতেও লকডাউনের মধ্যে বাড়ি থেকে বেরোনোয় মানুষকে নির্দয়ভাবে মারধর করেছে পুলিশ।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু), আইসিএমআর ও অন্যান্য গবেষক ও বৈজ্ঞানিক সংগঠন, বিশেষজ্ঞ, চিকিৎসক সকলেই বলছেন বাড়ি থেকে বেরিয়ে বাইরে মেলামেশা করলেই সংক্রমণের সম্ভাবনা বাড়ে। তাই ত্রিপুরার শিক্ষা দফতর কোথা থেকে, কোন বৈজ্ঞানিক উৎস থেকে করোনা, জীবাণু সংক্রমণ ও স্বাস্থ্য সম্পর্কিত এমন অভিনব তথ্য পেল?
ত্রিপুরা শিক্ষা দফতর ২০ অগস্ট থেকে প্রতিবেশী পাঠদান-নামে ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনা শুরু করার পদক্ষেপ করেছে। বলা হয়েছে ক্লাস চলবে খোলা পরিবেশে। শিক্ষকরা ৫ জন করে ছাত্রছাত্রীর দল তৈরি করে ক্লাস করাবেন বাইরে। ইতিমধ্যেই অভিভাবকরা তার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন।
প্রশ্ন তুলেছেন, যেখানে কেন্দ্র সরকার ৩১ অগস্ট পর্যন্ত সর্বত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেখানে ত্রিপুরা কেন ক্লাস শুরু করবে? কিন্তু প্রতিবাদে পিছু হঠছে না ত্রিপুরা শিক্ষা মন্ত্রক। রীতিমতো বিজ্ঞপ্তি জারি করে খোলা পরিবেশে করোনা না ছড়ানোর যুক্তি আরও প্রতিষ্ঠিত করতে চাইছে। ইতিমধ্যেই সরকারের এই সিদ্ধান্তের রাজ্যজুড়ে প্রতিবাদ শুরু হয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য