About Me

header ads

রাজ্যের তিন জেলার বিভিন্ন ব্লক এলাকা পরিদর্শনে মুখ্যমন্ত্রী!

ডেস্কও ওয়েব ডেস্কঃ করোনা ভাইরাস সংক্রমণজনিত উদ্ভূত পরিস্থিতিতে একান্তবাস কেন্দ্রগুলি পরিদর্শনে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব শনিবার ধলাই ও ঊনকোটি জেলা সফর করেছেন৷
আজ মুখ্যমন্ত্রী প্রথমে ঊনকোটি জেলা সফরে আসেন৷ সকালে মুখ্যমন্ত্রী ঊনকোটি জেলা সদর কৈলাসহরের আরকে ইনস্টিটিউশনের উপজাতি ছাত্রাবাসের প্রাতিষ্ঠানিক একান্তবাস কেন্দ্র পরিদর্শন করেন৷ এখানে ২০ জন একান্তবাসে রয়েছেন৷ এদের অধিকাংশই চেন্নাই ও বেঙ্গালুরু থেকে ফিরেছেন৷ একান্তবাস কেন্দ্র পরিদর্শনের সময় মুখ্যমন্ত্রী তাঁদের স্বাস্থ্য, খাওয়া-দাওয়া ও পানীয় জলের বিষয়ে কোনও অসুবিধার সম্মুখিন হচ্ছেন কিনা সে সব বিষয়ে খোঁজখবর নেন এবং মত বিনিময় করেন৷ এখান থেকে মুখ্যমন্ত্রী শ্রীনাথপুর হাইসুকলে গোষ্ঠী একান্তবাস কেন্দ্র পরিদর্শন করেন এবং যাঁরা একান্তবাসে রয়েছেন তাঁদের সঙ্গে কথা বলেন৷
উল্লেখ্য, এখানে ৬ জন একান্তবাসে রয়েছেন৷ এর পর মুখ্যমন্ত্রী চণ্ডীপুর ব্লকের সমরুরপাড় প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের গ্রামীণ একান্তবাস কেন্দ্র পরিদর্শন করেন৷ এখানে ৭ জন একান্তবাসে রয়েছেন৷ মুখ্যমন্ত্রী তাঁদের একান্তবাস কেন্দ্রে কোনও অসুবিধা হচ্ছে কিনা সে বিষয়ে খোঁজখবর নেন এবং তাঁদের সাথে মতবিনিময় করেন৷ সেখান থেকে তিনি চণ্ডীপুর ব্লকের হালাইছড়া চা বাগানের নিশিরঞ্জন নন্দিতা মেমোরিয়াল প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের ২০ শয্যা বিশিষ্ট কোভিড-১৯ কেয়ার সেন্টার পরিদর্শন করেন৷ মুখ্যমন্ত্রী ওই কোভিড কেয়ার সেন্টারের ব্যবস্থা সম্পর্কে বিস্তারিত খোঁজখবর নেন৷ ঊনকোটি জেলার একান্তবাস কেন্দ্র পরিদর্শনের সময় মুখ্যমন্ত্রীর সাথে ছিলেন ঊনকোটি জেলা পরিষদের সভাধিপতি অমলেন্দু দাস, সহকারী সভাধিপতি শ্যামল দাস, বিধায়ক ভগবান দাস, বিধায়ক সুধাংশু দাস, বিধায়ক মবস্বর আলি, কৈলাসহর পুরপরিষদের ভাইস চেয়ারপার্সন নীতিশ দে, জেলাশাসক রবীন্দ্র রিয়াং, পুলিশ সুপার রতিরঞ্জন দেবনাথ, জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডা. শরদিন্দ রিয়াং প্রমুখ৷ ঊনকোটি জেলা পরিদর্শনকালে মুখ্যমন্ত্রী দেব জেলাশাসককে কোভিড-১৯ মোকাবিলায় মাস্ক ব্যবহার করা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলা এবং আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের উপর সমগ্র জেলায় প্রচার অভিযান চালানোর নির্দেশ দেন৷
এদিন দুপুরে তিনি কমলপুরে যান৷ বর্তমান পরিস্থিতিতে জনগণ সঠিকভাবে সরকারি বিভিন্ন প্রকল্পের সুবিধা পাচ্ছেন কিনা এবং কোনও সমস্যা আছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে মহকুমার দুটি পঞ্চায়েত পরিদর্শন করেন৷ মুখ্যমন্ত্রী প্রথমে দুর্গাচৌমুহনি ব্লকের অন্তর্গত পূর্ব লাম্বুছড়া পঞ্চায়েত ও পরে সালেমা ব্লকের অন্তর্গত বড়লুতমা পঞ্চায়েত পরিদর্শন করেন৷ পূর্ব লাম্বুছড়া পঞ্চায়েতে তিনি ব্লক পর্যায়ে রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকারের জনমুখী প্রকল্পগুলির বিষয়ে খোঁজখবর নেন৷ লকডাউন চলাকালীন সময়ে এমজিএনরেগায় কতটি শ্রমদিবসের কাজ হয়েছে সে সম্পর্কেও খোঁজখবর নেন৷ মুখ্যমন্ত্রী পঞ্চায়েত পর্যায়ের কোভিড-১৯ মনিটরিং কমিটির সদস্যদের সাথে আলোচনায় তাঁদের দায়িত্ব ও কর্তব্য সম্পর্কে অবহিত করেন৷ দুই আশাকর্মীর সাথে আলোচনায় তাঁরা কীভাবে কোভিড-১৯ মোকাবিলায় কাজ করছেন সে বিষয়েও অবহিত হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷
এদিন তিনি যে সমস্ত প্রকল্পের মাধ্যমে সরাসরি জনগণের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয় সেগুলির বাস্তবায়নে দ্রুততার সাথে কাজ করতে ব্লক আধিকারিকদের নির্দেশ দেন৷ সালেমা ব্লকের অন্তর্গত বড়লুতমা পঞ্চায়েত কার্যালয়ে আলোচনা চলাকালে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব উজ্জ্বলা যোজনা, অটল জলধারা, কৃষি সম্মাননিধি, সৌভাগ্য যোজনা ইত্যাদি প্রকল্পের আওতাভুক্ত সুবিধাভোগীদের সুবিধা-অসুবিধার বিষয়ে খোঁজখবর নেন৷ এখানে তিনি দুই অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীর সঙ্গে সরাসরি আলোচনা করেন এবং সরকার নির্দেশিত সমস্ত সুবিধা এবং প্রচারমূলক কাজকর্মগুলি মূলস্তরে পৌঁছাচ্ছে কিনা সে বিষয়ে অবগত হন৷ মহকুমার এই দুই পঞ্চায়েত পরিদর্শনের সময় মুখ্যমন্ত্রীর সাথে ছিলেন খাদ্যমন্ত্রী মনোজকান্তি দেব, জেলা পরিষদের সভাধিপতি রুবি ঘোষ, বিধায়ক আশিস দাস, বিধায়ক পরিমল দেববর্মা, জেলাশাসক ড় ব্রাহ্মিত কউর, মহকুমাশাসক সুশান্ত কুমার সরকার৷
এদিকে জেলা সফরে এসে আজ বিকেলে তিনি আমবাসা মহকুমার অন্তর্গত বাঘমারা উচ্চ বুনিয়াদি বিদ্যালয়ে যান৷ বাঘমারা উচ্চ বুনিয়াদি বিদ্যালয়ে প্রাতিষ্ঠানিক একান্তবাসে ৬ জন রয়েছেন৷ তাঁদের মধ্যে ১ জন এসেছেন হায়দরাবাদ থেকে৷ বাকি ৫ জন এসেছেন চেন্নাই থেকে৷ চেন্নাই থেকে আগত ৫ জনের মধ্যে একটি শিশুও রয়েছে৷ মুখ্যমন্ত্রী প্রত্যেকের সঙ্গে আলাদাভাবে কথা বলেন এবং বিস্তারিত খোঁজখবর নেন৷ প্রাতিষ্ঠানিক একান্তবাসে থাকা অবস্থায় কোনও অসুবিধা হচ্ছে কিনা, চেন্নাই এবং হায়দরাবাদে কী কাজ করতেন প্রভৃতি বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী এঁদের সাথে কথা বলেন৷ শিশুখাদ্য রয়েছে কিনা তারও খবর নেন তিনি৷ এখানে মুখ্যমন্ত্রীর সফরসঙ্গী ছিলেন ক্রীড়া ও খাদ্যমন্ত্রী মনোজকান্তি দেব, বিধায়ক পরিমল দেববর্মা, বিধায়ক রামপদ জমাতিয়া, আমবাসা পঞ্চায়েত সমিতির চেয়ারপার্সন সুচিত্রা দেববর্মা, জেলা পরিষদের সদস্য মৃদুল দত্ত, ধলাইয়ের জেলাশাসক ড় ব্রাহ্মিত কউর, অতিরিক্ত জেলাশাসক গোবেকর ময়ূর রতিলাল, আমবাসার মহকুমাশাসক জংটে ভানুলাল দোয়াতি, সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক ধবজিৎ দেববর্মা, মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক চিতন দেববর্মা সহ জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা ও চিকিৎসকগণ৷

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য