About Me

header ads

ছেলেকে দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা মায়ের!


ডেস্কও ওয়েব ডেস্কঃ ছেলেকে দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা জন্মদাত্রী মার। ঘটনা আমতলী থানার অন্তর্গত বল্লভপুর এলাকায়। গুরুতরভাবে আহত ছেলে বর্তমানে জিবি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। অভিযুক্ত মা মমতা ভৌমিককে আটক করেছে আমতলী থানার পুলিশ। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চাঞ্চল্য বিরাজ করছে।
রাজধানী আগরতলা শহর লাগোয়া আমতলী থানার অন্তর্গত বল্লভপুর এলাকার বাসিন্দা প্রাণজিৎ ভৌমিক। পেশায় যাত্রীবাহী অটোচালক। প্রাণজিৎ ভৌমিকের মা মমতা ভৌমিক। বয়স আনুমানিক ৫০ বছর। সাংসারিক বিষয় নিয়ে মা ও ছেলের মধ্যে প্রায়ই বিবাদ লেগে থাকত। এরই মধ্যে বুধবার সকালে মা মমতা ভৌমিক ছেলে প্রাণজিৎ ভৌমিককে ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করে। এদিন সকাল ৬ টা নাগাদ প্রাণজিৎ ভৌমিকের স্ত্রী রান্না করার জন্য রান্না ঘরে যায়। তখন নিজ ঘরে একা ঘুমাচ্ছিল প্রাণজিৎ। এই সুযোগে মমতা ভৌমিক ধারালো দা দিয়ে প্রাণজিৎ এর গলায় কোপ দেয়। কিন্তু লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে দায়ের কোপ লাগে প্রানজিৎ এর মুখে। তখন প্রাণজিৎ এর চিৎকার শুনে বাড়ির অন্যান্য লোকজন এগিয়ে আসে। মমতা ভৌমিককে আটক করে। এমনটা জানান প্রাণজিৎ এর স্ত্রী।
ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে যায় আমতলী থানার ওসির নেতৃত্বে পুলিশ বাহিনী। ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করে। উদ্ধার করা হয় ধারালো দা টি। আমতলী থানার ওসি জানান অভিযুক্ত মা মমতা ভৌমিককে আটক করা হয়েছে।
বুধবারই তাকে আদালতে সোপর্দ করা হবে। এদিকে মুখে দায়ের কোপ লাগার ফলে গুরুতরভাবে আহত হয় প্রাণজিৎ ভৌমিক।বর্তমানে সে জিবি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য বিরাজ করছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য