About Me

header ads

ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে হত্যার চেষ্টা মামলায় এক ব্যক্তির কারাদন্ড!


ডেস্কও ওয়েব ডেস্কঃ ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে কুপিয়ে এক মহিলাকে খুনের চেষ্টার অপরাধে এক ব্যক্তিকে দোষী সাব্যস্ত করে কারাবাসের সাজা শুনিয়েছে আদালত৷ শনিবার দক্ষিণ জেলার জেলা ও দায়রা আদালতের বিচারক ওই অপরাধে সমীর পালকে দোষী সাব্যস্ত করে ভারতীয় ফৌজদারি দণ্ডবিধির ৩০৭ ধারায় ৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড সহ দশ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন৷ অনাদায়ে তিন মাসের হাজতবাসের দণ্ড দেন তাকে৷ এদিকে, ভারতীয় ফৌজদারি দণ্ডবিধির ৩৫৪ ধারায় এক বছরের জেল ও পআঁচ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে অতিরিক্ত একমাসের কারাবাসের দণ্ডিত করা হয়েছে সমীরকে৷
প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের ৩১ নভেম্বর বিলোনিয়া বড়পাথাড়ি পিপরিয়াখলায় পালপাড়ার বাসিন্দা জনৈক মহিলা দুপুর বারোটা নাগাদ নিজের বাড়ির পেছনে পুকুরের ধারে গরুকে খাওয়ানো সময় ওই এলাকারই বাসিন্দা সমীর পাল বলপূর্বক তাকে জঙ্গলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে৷ শেষে ব্যর্থ হয়ে দা দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়েছে তাকে৷ মহিলার চিৎকারে লোকজন ছুটে এলে সমীর পাল পালিয়ে যায়৷ আহত মহিলাকে প্রথমে বড়পাথাড়ি প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও পরে বিলোনিয়া হাসপাতালে চিকিৎসা করা হয়৷
ওই ঘটনায় পিআরবাড়ি থানায় মহিলার পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করা হয়৷ পুলিশ ওই মামলায় সমীর পালকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করে৷ পিআরবাড়ি থানার কর্তব্যরত পুলিশ আধিকারিক মামলার তদন্ত করে আদালতে চার্জশিট জমা দেন৷ দক্ষিণ ত্রিপুরা জেলা ও দায়রা আদালতের বিচারক উদিত চৌধুরী ১৯ জনের সাক্ষ্য গ্রহণের পর সমীর পালকে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৭ ও ৩৫৪ ধারায় দোষী সাব্যস্ত করেন এবং কারাবাসের সাজা দেন৷ এই মামলা পরিচালনায় সরকার পক্ষে ছিলেন আইনজীবী প্রভাত চন্দ্র দত্ত৷ দুটি পৃথক পৃথক ধারায় এই মামলার সাজা ঘোষণা করেন জেলা ও দায়রা বিচারক৷

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য