About Me

header ads

নেশা বিরুধি অভিযানে রাজ্য পুলিশের বড় সাফল্য!


ডেস্কও ব্যুরোঃ একের পর এক নেশা বিরুধি অভিযানে সাফল্য পাচ্ছেন ত্রিপুরা রাজ্য পুলিশ। রাজ্যের দুটি থানা এলাকায় পরপর অভিযান চালিয়ে আটক করা হলো বেশ কিছু নেশা সামগ্রী সহ দুই ব্যাক্তি।
ঘটনার বিবরনে জানাযায়, সোমবার ভোরে পূর্ব থানার পুলিশ রাজধানীর মঠচৌমুনী স্থিত ফরেন লিকার সপে অভিযান চালায়। ফরেন লিকার সপের সামনে ভূপেশ শাহ নামে এক ব্যক্তি কে অবৈধভাবে মদ বিক্রির সময় আটক করে পুলিশ।
পুলিশ সুত্রে খবর ঐ ব্যাক্তির কাছ থেকে উদ্ধার হয় 80 বোতল ফরেন লিকার। ধৃত ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানান পূর্ব থানার পুলিশ।
দীর্ঘদিন থেকেই পুলিশের কাছে খবর ছিল রাজধানীর বেশ কিছু স্থানে মদ বিক্রি হচ্ছে। সেই খবরের ভিত্তিতে এই অভিযান চালায় পুলিশ। তবে মদের কাউন্টার বন্ধ ছিল বলে জানায় পুলিশ। যারা এভাবে মদ বিক্রি করছেন তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেয় পুলিশ।
অপর এক ঘটনায়, নেশাকারবারীদের আটক করার ক্ষেত্রে বরসড় সাফল্য পেলো শান্তির বাজার থানার পুলিশ। সমগ্র রাজ্যজুরে চলছে লকডাউন এর পক্রিয়া। লকডাউন চলার ফলে সোমবার সকাল থেকেই বাইক ও গাড়ী চেকিং এ বসে শান্তির বাজার থানার আই পি এস অক্ষয় প্রহল্লাদ কুন্ডে।
এই সময় বীরচন্দ্র নগর এলাকা থেকে এইটি বাইকে করে দুই যুবক সাব্রুম মহকুমার মনুবাজারের উদ্দ্যেশ্যে রওনা হয়।  তখন পুলিশ বাইক আরোহিকে বাইক থামানোর জন্য নির্দেশ দেন। কিন্ত বাইক আরোহি পুলিশের নির্দেশকে অমান্য করে বাইক দ্রুত গতিতে চালিয়ে যায়। পরবর্তী সময় আই,পি,এস দুই যুবককে ধাওয়া করে আটক করেন। তাদের কাছ থেকে ১১৯ বোতল ফেন্সিডেল আটক করে পুলিশ। এই দুই যুবক হলো রাজীব সাহা, বয়স ৩৪  ও রাকেশ লস্কর , বয়স ৩০। ধৃত দুই যুবক সাব্রম মহকুমার মনু এলাকার বাসিন্দা বলে জানাযায়।
পুলিশ তাদেরকে আটক করে শান্তির বাজার থানায় নিয়ে আসে।  তাদেরকে জিঞ্জাসাবাদের পর উঠে আসে আসল মাস্টার মাইন্ড এর নাম।  এই খবরের ভিত্তিতে আই পি এস অক্ষয় প্রহল্লাদ কুন্ডে ও শান্তিরবাজার থানার ওসি সুব্রত চক্রবর্তীর যৌথ অভিযানে বীরচন্দ্র নগর এলাকার বাসিন্দা রাজেশ্বর দেবনাথ ওরফে রাজু-র  বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে ২০৩০ বোতল ফেন্সিডেল আটক করে শান্তির বাজার থানার পুলিশ।
এই অভিযান সম্পর্কে সংবাদমাধ্যমের সামনে জানান শান্তির বাজার থানার ওসি সুব্রত চক্রবর্তী। আটককৃত ফেন্সিডিলের বাজার মূল্য প্রায় ৫ লক্ষ টাকা বলে জানা যায়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য