About Me

header ads

কোভিড-১৯ ঘিরে কঠিন অর্থনৈতিক পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে সরকার বদ্ধপরিকর: মন্ত্রী রতন লাল নাথ!


ডেস্কও ব্যুরোঃ কোভিড-১৯ কে ঘিরে কিছু কঠোর অর্থনৈতিক ব্যবস্থা নেওয়ার প্রয়োজন। যাতে সরকারী খরচ বা ব্যয় হ্রাস করা যায়। এই সমস্ত নির্দেশ সরকারী বিভাগ, সমস্ত দপ্তর, রাজ্যের পি.এস.ইউ গুলি, কোপারেটিভ সোসাইটি, শহর ও গ্রামের উভয় সংস্থার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে।
শুক্রবার মন্ত্রীসভার সিদ্ধান্তের বিষয়ে জানাতে গিয়ে এই কথা বলেন আইনমন্ত্রী রতন লাল নাথ। এর মধ্যে রয়েছে বিধায়ক এলাকার উন্নয়ন তহবিল ৫০ লক্ষ টাকা দুই বছরের জন্য স্থগিত করা হয়েছে, সরকারী বিভিন্ন দপ্তর,  পি.এস.ইউ গুলি, কোপারেটিভ সোসাইটি, এবং স্থানীয় প্রশাসনের প্রয়োজনীয় খরচ কমানোর জন্য। সমস্ত দপ্তরের অফিস খরচ, অতিরিক্ত খরচের ১৫ শতাংশ সাশ্রয় করতে হবে। কেন্দ্রীয় সরকারের যে সকল প্রকল্প রয়েছে সেই সকল প্রকল্পের জন্য যে টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে, সেই টাকা দিয়ে প্রকল্প বাস্তবায়িত করতে হবে। এইও ক্ষেত্রে রাজ্য সরকার কোন অর্থ প্রদান করবে না।
নন ট্যাক্স রেভিনিউ সংগ্রহ ১০ শতাংশ বৃদ্ধি দেখাতে হবে সকল দপ্তরকে। কাগজের ব্যবহার কমাতে ইন্টারনেট ব্যবহার বৃদ্ধি করতে হবে। কোন দপ্তর নতুন করে কোন যানবাহন ক্রয় করতে পারবে না। অত্যন্ত প্রয়োজন হলে অর্থ দপ্তর তার মঞ্জুরি দেবে।  সরকারী বিভাগ, সমস্ত দপ্তর, রাজ্যের পি.এস.ইউ গুলি, কোপারেটিভ সোসাইটি গুলিতে ১০ শতাংশ বিদ্যুৎ বিল হ্রাস করতে হবে। একই সাথে টেলিফোন বিল ১০ শতাংশ হ্রাস করতে হবে। বিনোদন কর কঠোর ভাবে সংগ্রহ করতে হবে। সরকারী অনুষ্ঠান, মেলা, প্রদর্শনী ইত্যাদি করতে গেলে মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর থেকে অনুমোদন নিতে হবে। সরকারী ভাবে কোন ধরনের জমি অধিগ্রহণ করা হবে না। তবে কেউ দান করলে তা গ্রহণ করা হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য