About Me

header ads

ত্রিপুরা রাজ্যে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হওয়ার কোনও তথ্য নেইঃ স্বাস্থ্য সচিব।

ডেস্কও ব্যুরোঃ বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে ৭ হাজার ২৭৪ জনকে।  ২১৩৩ জন  ১৪ দিনের সময়সিমা অতিক্রম করেছে। ইনস্টিটিউসনাল কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ১৩১ জন।  ১৬১ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। তাদের প্রত্যেকের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।  PPE রয়েছে রাজ্য। তবে দিল্লির নিজামউদ্দিন ফেরৎ ৭২ জনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তাদের মধ্যে ৫৪ জনের নমুনা নেগেটিভ এসেছে। দ্বিতীয় রাউন্ডের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তার রিপোর্ট এখনো আসেনি। ১ দিন অন্তর অন্তর সকলের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে। এখনো পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষায় কোন পজেটিভ আসেনি।  এইটা একটা আশার আলো রাজ্যের জন্য।

বৃহস্পতিবার মহাকরণে সাংবাদিক সম্মেলন করে এই সংবাদ জানানা স্বাস্থ্য দপ্তরের সচিব  দেবাশিষ বসু। নিজামুউদ্দিন ফেরৎ কারুর মধ্যে করোনা নেই।  তিনি আরও জানান কোভিড ১৯-এর জন্য জিবি হাসপাতালে বিশেষ ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়া ৫০ শয্যা বিশিষ্ট নতুন ব্যবস্থা করা হয়েছে আই জি এম হাসপাতালে। এর মধ্যে ৩০ জনের ব্যবস্থা সম্পন্ন হয়েছে। সব ধরনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে বলে জানান তিনি।

রাজ্যের বাজার গুলিতে মূল্য নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। তা নজর দারি রাখছে একটি কমিটি। মূল্য তালিকা তুলে ধরেন স্বাস্থ্য দপ্তরের সচিব। মুল বাজার থেকে রিপোর্ট সংগ্রহ করে তা দিল্লিতে পাঠানো হচ্ছে। তবে এই সমস্যা নিয়ে বাজার গুলিতে অভিযান চালানো জন্য নির্দেশ দেন তিনি। অভিযোগের সত্যতা পেলে দোকান দারের বিরুদ্ধে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা এবং আইন অনুজায়ি ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়ে জানান স্বাস্থ্য দপ্তরের সচিব দেবাসিষ বসু। ইন্টেনসিভ এনফোর্স মেন্ট শুরু করার নির্দেশ দেন তিনি। কোন ভাবেই এই সুজোগের অপ ব্যবহার করতে যাতে না পারে তার কড়া বার্তা দেন। একই সঙ্গে মেডিক্যাল ইন্সপেক্টরও ওষুধের দোকান গুলিতে অভিযান চালাবে বলে জানান তিনি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য