About Me

header ads

ফের লকডাউন লঙ্ঘন করে বিজেপি বিধায়কের জন্মদিন পালন!

ডেস্কও ব্যুরোঃ দেশব্যাপী ২১ দিনের লকডাউনকে স্পষ্টতই কাঁচকলা দেখিয়ে ফের এক রাজনৈতিক নেতার সাড়ম্বরে জন্মদিন পালন। এবং ঘটনার কেন্দ্রে ফের এক বিজেপি বিধায়ক। কিছুদিন আগেই জন্মদিনে নিজের বাড়িতে ২০০ লোকের জমায়েত করার অভিযোগে আইনি পদেক্ষেপ নেওয়া হয় মহারাষ্ট্রের এক বিজেপি বিধায়কের বিরুদ্ধে। এবার আলোড়ন উঠেছে কর্ণাটকের টুমকুর জেলার এক বিধায়ককে ঘিরে। খবরে প্রকাশ, শুক্রবার জেলার একটি সরকারি স্কুলে অন্তত ১০০ অতিথির সঙ্গে নিজের জন্মদিন পালন করেন তিনি। শুধু তাই নয়, ঘটনাস্থলে তাঁর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে উপস্থিত ছিল পুলিশও।
তুরুভেকেরে-র বিধায়ক মসালে জয়রামের এই জমকালো ‘বার্থডে পার্টি’র ছবি আপাতত ভাইরাল। ঘটনাস্থল গুব্বি তালুকের ইড়াগুরু গ্রামের সরকারি স্কুল, রাজধানী বেঙ্গালুরু থেকে স্রেফ ছয় কিলোমিটারের দূরত্বে।
ছবিতে দেখা যাচ্ছে, মাথায় পাগড়ি পরে এবং গায়ে শাল জড়িয়ে ভক্ত-পরিবৃত হয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছেন বিজেপি নেতা, এবং জন্মদিনের কেক কাটার সময় তাঁর চারপাশে একাধিক শিশুকেও দেখা যাচ্ছে। পার্টির অতিথিদের পরে বিরিয়ানিও খাওয়ানো হয়।
এবং সবশেষে বিধায়ক করোনাভাইরাস সংক্রান্ত একটি ভাষণ দেন, রোগ ছড়ানো কীভাবে রোধ করা যায়, সেই পরামর্শ সমেত।
স্থানীয় তহশিলদার প্রদীপ কুমার হিরেমাথ জানিয়েছেন, “আমাদের কাছে এই ঘটনার খবর এসেছে, এবং আমি সার্কেল ইন্সপেক্টরকে একটি নোটিশ জারি করেছি।”
টুমকুর জেলার নেট্টিকেরে-র বাসিন্দা বিধায়ক জয়রাম একজন ব্যবসাদারও বটে, যিনি বেঙ্গালুরুতে ‘তেজু মসালা’ নামক সংস্থার মালিক।
কর্ণাটকে অবশ্য এমনটা প্রথমবার নয় যে রাজনৈতিক নেতারা সামাজিক দূরত্ব-বিধি লঙ্ঘন করেছেন। গত ১৫ মার্চ নিজেই বড়সড় সমাবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে বেলাগাভিতে এক বিজেপি নেতার বিয়ের নিমন্ত্রণ রক্ষা করতে যান রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বি এস ইয়েদুরাপ্পা স্বয়ং, যেখানে অতিথি সংখ্যা ছিল প্রায় দুই হাজার।
এই রাজ্যেই লকডাউন লঙ্ঘন করেন শয়ে শয়ে কংগ্রেস কর্মীও, গত মাসে তাঁদের নেতা ডি কে শিবকুমার রাজ্য শাখার সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর। পার্টি কর্মীরা শিবকুমারের বাড়ি এবং অফিসের বাইরে বিপুল সমারোহের আয়োজন করেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য