About Me

header ads

শীঘ্রই শুরু হবে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষার উত্তরপত্র মূল্যায়নের কাজ: শিক্ষামন্ত্রী!


ডেস্কও ব্যুরোঃ করোনা উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আগামী ৩ মে পর্যন্ত সমগ্র দেশের লকডাউন এর মেয়াদ বৃদ্ধি করা হয়েছে। এই অবস্থায় রাজ্যে ছাত্র-ছাত্রীদের কথা মাথায় রেখে বিশেষ উদ্যোগ নিল শিক্ষা দপ্তর। সিলেবাস অনুযায়ী ক্লাস নেবে শিক্ষক-শিক্ষিকারা। রুটিন অনুযায়ী রেকর্ডিং করে চালানো হবে বৈদ্যুতিন সংবাদ-মাধ্যমে। সপ্তাহে প্রতিদিন এক ঘণ্টা করে নেওয়া হবে ক্লাস। বুধবার মহাকরণে বৈঠকের পর এই  সিদ্ধান্তের কথা জানান শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ।
ত্রিপুরা মধ্যশিক্ষা পর্ষদ পরিচালিত এই বছরের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের অধিকাংশ পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। যে সমস্ত বিষয়ের পরীক্ষা হয়েছে সেই উত্তরপত্র একত্রীকরণ করে উত্তর পত্র মূল্যায়নের কাজ করা হবে। তার জন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানান শিক্ষা মন্ত্রী রতন লাল নাথ। তিনি আরও জানান ভিডিও কনফারেন্সে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ ও শিক্ষা দপ্তরের অধিকর্তার সাথে বৈঠক করা হয়েছে। সিদ্ধান্ত হয়েছে বিভিন্ন জেলা থেকে উত্তর পত্র গুলি রাজধানীতে নিয়ে আসা হবে। একত্রীকরণ করে উত্তর পত্র মূল্যায়নের কাজ করা হবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে। এই ক্ষেত্রে যারা উত্তরপত্র মূল্যায়ন করবে তাদের আসা যাওয়ার যেন কোন ধরনের অসুবিধা না হয় তার জন্য টি.আর.টি.সি-র মাধ্যমে গাড়ির ব্যবস্থা করা হবে। তবে যেই সকল পরীক্ষা বাকি রয়েছে সেই গুলি লক ডাউন উঠে যাওয়ার পর অনুষ্ঠিত হবে বলেও জানান তিনি।
ত্রিপুরার শিক্ষাবন্ধু ইউটিউব এর মাধ্যমে এই ক্লাস দেখতে পারবেন ছাত্রছাত্রীরা। আপডেটেড থাকতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এবছর গ্রীষ্মকালীন ছুটির হচ্ছে না। এদিকে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের অধিকাংশ পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। যে সমস্ত বিষয়ের পরীক্ষা হয়েছে সেই উত্তরপত্র একত্রীকরণ করে উত্তর পত্র মূল্যায়নের কাজ করা হবে। তার জন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আগামী দিনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে যাতে পড়াশোনা চালানো যায় তার জন্য নতুন চিন্তা ভাবনা করছে দপ্তর।এদিন আটটি জেলার ডি ই ও -র সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ। ভিডিও কনফারেন্সে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ ও শিক্ষা দপ্তরের অধিকর্তা উপস্থিত ছিলেন। তাদের তৈরি থাকার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
মৌলানা আবুল কালাম আজাদ মেরিট অ্যাওয়ার্ড মাধ্যমিক এক্সামিনেশন, ১২৬ জনকে ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে ২৫০০ টাকা করে প্রদান করা হয়েছে। এতে ব্যয় হবে ৩ লক্ষ ১৫ হাজার টাকা। অন্যদিকে উচ্চমাধ্যমিকে এই মেরিট অ্যাওয়ার্ড ১৫৬ জনকে ৩৫০০ টাকা করে একাউন্টের মাধ্যমে প্রদান করা হয়েছে। বেগম রোকেয়া স্বর্ণপদক মাধ্যমিকের শীর্ষ স্থানাধিকারীকে স্বর্ণপদকসহ ১৫ হাজার  টাকা প্রদান করা হবে। মোট ২৮৪ জন কে সংখ্যালঘু দপ্তর থেকে এই সময়ে ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে পুরস্কার তুলে দেয়া হবে।মহাকরণে বৈঠক শেষে এ তথ্য দেন শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য