About Me

header ads

‘অনাহারে মেয়ের মৃত্য়ু হয়নি’, আঙুলের ছাপ নেওয়া হল বাবা-মা’র!


ডেস্কও ব্যুরোঃ করোনা রুখতে দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। এই পরিস্থিতিতে ঝাড়খণ্ডে অনাহারে তরুণীর মৃত্যু অভিযোগ ঘিরে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। এদিকে, অনাহারে নয়, রোগভোগের জেরেই ওই তরুণীর মৃত্যু হয়েছে বলে কার্যত মুচলেকা লিখিয়ে তাতে তরুণীর বাবা-মায়ের বুড়ো আঙুলের ছাপ নেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পঞ্চায়েত প্রধান ও পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যরা জোর করে কাগজে তরুণীর বাবা-মায়ের বুড়ো আঙুলের ছাপ নিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।
ঝাড়খণ্ডের বোকারোর তিখারা গ্রামের বাসিন্দা জিতেন মারান্ডির একটি ভিডিও সম্প্রতি ভাইরাল হয়ে যায়। যে ভিডিওতে মারান্ডিকে বলতে শোনা গিয়েছে যে, অনাহারে তাঁদের মেয়ের মৃত্যু হয়েছে। এই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই উপরমহল থেকে চাপ দেওয়াতেই বুড়ো আঙুলের ছাপ নেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
এ প্রসঙ্গে সংবাদ মাধ্যমকে মারান্ডি বলেন, মেয়ের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ ছিলাম। জানতাম না ওই কাগজে কী লেখা ছিল। কয়েকজন এসে বুড়ো আঙুলের ছাপ নিয়ে যান
জানা গিয়েছে, গত ২৪ মার্চ লকডাউনের জেরে কাজ না থাকায় পাশের রামগড় জেলা থেকে গ্রামে ফেরেন মারান্ডি পরিবার। তাঁর মেয়ে বধির ও প্রতিবন্ধী ছিলেন। তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয় সম্প্রতি। মারান্ডি পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, যেটুকু টাকা তাঁদের কাছে ছিল, সবটাই মেয়ের ওষুধ কিনতে গিয়ে খরচ হয়ে যায়। ফলে হাসপাতালে চেক আপ করতে পারেননি
এ ঘটনায় তদন্তের দাবি জানিয়েছে জাতীয় মহিলা কমিশন। কমিশনের তরফে বলা হয়েছে, একটা প্রতিবন্ধী মেয়ে অনাহারে মারা গিয়েছে ঝাড়খণ্ডে। দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য