About Me

header ads

স্বাস্থ্যকর্মীদের হেনস্থা বন্ধ করুন, মোদীকে চিঠি এইমস-এর!


ডেস্কও ব্যুরোঃ দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইন্সটিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সেস (AIIMS বা এইমস)-এর রেসিডেন্ট ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন (RDA) প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি লিখে অভিযোগ জানিয়েছে, ব্যক্তিগত সুরক্ষার সরঞ্জাম (personal protective equipment বা PPE), করোনাভাইরাস টেস্টিং কিট, এবং কোয়ারেন্টাইন কেন্দ্র সম্পর্কিত প্রশ্ন তুললে সমালোচনার মুখে পড়তে হচ্ছে স্বাস্থ্যকর্মীদের।
বিশেষ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় স্বাস্থ্যকর্মীদের এই ধরনের সমালোচনার নিন্দা করে এইমস-আরডিএ বলেছে, এই ধরনের প্রশ্নগুলিকে ইতিবাচক ভাবে দেখা উচিত, এবং সরকারের প্রতি আবেদন জানিয়েছে যেন স্বাস্থ্যকর্মীদের সাহায্যার্থে বিতর্ক এবং আলোচনার জন্য পর্যাপ্ত পরিসরের সৃষ্টি হয়।
চিঠিতে হাসপাতালের রেসিডেন্ট ডাক্তাররা COVID-19 এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মোদীর নেতৃত্বকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেছেন, লকডাউন জারি হওয়ার ফলে দিল্লির স্বাস্থ্য পরিষেবা কেন্দ্রগুলি এবং প্রশাসন যথেষ্ট সময় পেয়েছে প্রস্তুতি নেওয়ার।
এইমস-আরডিএর সভাপতি আদর্শ প্রতাপ সিং এবং সাধারণ সম্পাদক শ্রীনিবাস রাজকুমার টি চিঠিতে বলেন, গত কদিন ধরে কিছু ঘটনা ঘটেছে, যার প্রতি আপনার দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাই। আমাদের ফ্রন্টলাইন স্বাস্থ্যকর্মীরা ডাক্তার, নার্স এবং অন্যান্য সহযোগী স্টাফ তাঁদের কিছু সমস্যা নিয়ে আলোচনা করার জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় এগিয়ে এসেছিলেন, বিশেষত পিপিই, COVID টেস্টিং কিট এবং কোয়ারেন্টাইন কেন্দ্রের অভাব সংক্রান্ত। আধিকারিকদের উচিত, এই ধরনের প্রয়াসকে গঠনমূলকভাবে দেখা।
কিন্তু রোগী এবং সহকর্মীদের কল্যাণের কথা মাথায় রেখে তাঁদের এই প্রয়াসের ফলে প্রশংসার বদলে জুটেছে কড়া সমালোচনা। তাঁদের বক্তব্য, করোনাভাইরাস মহামারীর প্রেক্ষিতে সরকারের দায়িত্ব এটা নিশ্চিত করা যে, এইসব সৈনিকদের বক্তব্য শোনা হবে এবং তাঁদের মতামতকে সম্মান করা হবে, অপমান নয়।
চিঠিতে বলা হয়েছে, সোশ্যাল মিডিয়াকে আপনি নিজে যেহেতু এত ধরনের গঠনমূলক কাজে ব্যবহার করেন, আপনি বুঝবেন এই পরিস্থিতিতে ডাক্তারদের মানসিক অবস্থা কী হতে পারে। আমরা এইসব ঘটনার তীব্র নিন্দা করছি এবং সরকারের কাছে কৃতজ্ঞ থাকব যদি স্বাস্থ্যকর্মীদের সাহায্যের জন্য বিতর্ক এবং আলোচনার একটি স্বাস্থ্যকর পরিবেশ সৃষ্টি করা হয়, তাঁদেরকে ছোট না করে। তাঁদের বিরুদ্ধে সমস্ত শাস্তি তুলে নিয়ে সম্মান পুনঃপ্রতিষ্ঠিত হোক।
অন্যদিকে, সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরতে থাকা একটি নোটিশ অনুযায়ী, দিল্লিরই সফদরজং হাসপাতালের আরডিএ ডোনেশন হিসেবে পিপিই সরঞ্জাম, এন-৯৫ মাস্ক, ট্রিপল লেয়ার মাস্ক এবং হ্যান্ড স্যানিটাইজার-এর আবেদন জানিয়েছে। নোটিশে বলা হয়েছে, এই ডোনেশন সফদরজং হাসপাতালের মেডিক্যাল সুপারের দফতর মারফত দিতে হবে।
তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের মতে, সুরক্ষা সরঞ্জামের কোনও অভাব ঘটে নি, তবে নোটিশটি জারি করা হয়েছে সেইসব সংগঠনের জন্য, যারা কিছু চিকিৎসা সরঞ্জাম দান করতে চায়। তবে সফদরজং আরডিএ-র সভাপতি মনীশ জানিয়েছেন, এই সুযোগে কিছু অসাধু মানুষ আমাদের নোটিশের সঙ্গে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নম্বর জুড়ে দিয়ে অর্থ সাহায্য চাইছে। এখনও হাসপাতালে সরঞ্জামের অভাব নেই, তবে ভবিষ্যতের কথা ভেবে আমাদের তৈরি থাকতে হবে

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য