About Me

header ads

উত্তর জেলায় একাংশ পুলিশ কর্মীর সহযোগে বেআইনি নেশা কারোবার!


ডেস্কও ব্যুরোঃ উত্তর ত্রিপুরা জেলা পুলিশ যখন একের পর নেশা সামগ্রী আটক অভিযানে তৎপর ঠিক তখনই এক পুলিশ কর্মির বাড়ি সংলগ্ন এলাকা থেকে বিপুল পরিমান নেশা সামগ্রী আটক করলো সীমান্ত রক্ষী বাহিনী।
ঘটনা উত্তর ত্রিপুরা জেলার ধর্মনগর মহকুমার অন্তরগত ইয়াকুব নগরের আলম বাজার এলাকায়। মুখ্যমন্ত্রী বরাবরই সীমান্ত এলাকায় কঠোর নজরদারির কথা বলে চলেছেন। কিন্তু তাদের কথা তুয়াক্কা না করেই সীমান্তে চলছে বেআইনি নেশার রমরমা ব্যবসা। ধারনা করা হচ্ছে এই নেশা কারবারের সাথে জড়িয়ে রয়েছেন ত্রিপুরা পুলিশের একাংশ। বুধবার তারই প্রমাণ মিলল ধর্মনগরে।
ঘটনার বিবরনে জানাযায়, বুধবার সাতসকালেই ধর্মনগরের ভাগ্যপুর সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর ১৬৬ নম্বর ব্যাটেলিয়নের জাওয়ান ও ত্রিপুরা পুলিশের যৌথ অভিযান ত্রিপুরা পুলিশের  এসপিও তথা বর্তমানে ত্রিপুরা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত মোঃ ইরফান আলীর বাড়িতে তাল্লাশী চালিয়ে নেশাজাতীয় ইয়াবা ট্যাবলেট সহ বেশ কিছু এসকাফ কফ সিরাপ উদ্ধার করে।
বিএসএফ সূত্রে জানানো হয়েছে যার বাজার মূল্য ৭লক্ষ ৭৪হাজার ৯২৫টাকা। বিএসএফ পরবর্তীতে নেশা সামগ্রী গুলো ত্রিপুরা পুলিশের হাতে তুলে দেন।
এই ঘটনায় পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। পুলিশি তদন্তেই আসল রহস্য বেরিয়ে আসবে। প্রশাসনের সাথে যুক্ত ব্যাক্তি তথা গোপনে এমন বেআইনি নেশা সামগ্রী উদ্ধার করে বের করার দায়িত্ব যার উপর তাঁর বাড়ি থেকে পুলিশি হানায় বেআইনি সামগ্রী উদ্ধার হওয়ায় সাধারণ মানুষ তাকে অন্য ভাবে দেখছেন বলে ওয়াকিবহাল মহলের অভিমত।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য