About Me

header ads

আসাম সীমানায় জোর তল্লাশি উত্তর পূর্বের রাজ্যগুলির!

নাম নেই এনআরসি তালিকায়। যা ঘিরে আসামে আতঙ্ক। সতর্ক আসাম লাগোয়া উত্তর পূর্বের রাজ্যগুলি। এনআরসি তালিকা বহির্ভূতরা যাতে মেঘালয় বা অন্য কোনও রাজ্যে অনুপ্রবেশ করতে না পারে তার জন্য সজাগ সেইসব রাজ্যের প্রশাসন। আসাম সীমানায় বাড়ান হয়েছে তল্লাশি। বৈধ পরিচয়পত্র ছাডা় কাউকে রাজ্যে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না।

আসামের পশ্চিম ও দক্ষিণ পশ্চিম সীমানায় অবস্থিত মেঘালয়। এনআরসি তালিকা প্রকাশের পর আসাম মেঘালয়ের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে রয়েছে অনুপ্রবেশের ভ্রুকুটি। পরিসংখ্যানই তার প্রমান। সেপ্টেম্বর মাসে আসাম থেকে এরাজ্যে প্রবেশ করা ১,৩২৯জনকে ফেরত পাঠান হয়েছে। এদের কাছে বৈধ নাগরিক পরিচয়পত্র ছিল না বলে দাবি প্রশাসনের। মেঘালয় পুলিশের অনুপ্রবেশ বিরোধী ও সুরক্ষা বিষয়ক শাখার ডিআইজি ও পাসি বলেন, ‘পুরদমে তল্লাশি অভিযান জারি রয়েছে। কিন্তু আমরা দেখছি যারা আসাম থেকে আসছেন তাদের বৈধ পরিচয়পত্র রয়েছে কিনা। এনআরসি তালিকা আমরা দেখছি না।’

এই সমস্যার বিষয়টি সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের কাছে তুলে ধরেন মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী কনরাড সাঙ্গমা। উদ্বেগ প্রকাশ করে শাহ বলেছিলেন, ‘অনুপ্রবেশকারীরা কেই আসামে থাকবে না, একই সঙ্গে তাদের দেশের অন্য রাজ্যেও তাদের ছুকতে দেওয়া হবে না। অমরা কেবল আসামকেই অনুপ্রবেশমুক্ত করছি না, এটা সমগ্র দেশের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। এর মধ্যে উত্তর পূর্ব ভারতও অন্তর্ভূক্ত।’
 
গত বছর এনআরসি খসড়া তালিকা প্রকাশের পর পরই মেঘালয়ের খাসি স্টুডেন্ট ইউনিয়ন এই আশঙ্কার কথাই জানান। তাদের অভিযোগ ছিল রাজ্য আসাম সীমানায় ভাল করে তল্লাশি চালায় না। যা মেঘালয়ে ক্ষেত্রে বিপদের হতে পারে। তারপরই অবশ্য নাকা তল্লাশি বাড়ায় পুলিশ।

এই আতঙ্ক গ্রাস করেছে মিজোরামকেও। সেখানেও অনুপ্রবেশকারীদের রুখতে রাজ্য সীমানায় তল্লাশি জোরদার করা হয়েছে। মিজোরামের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লালচাপলিয়ানা বলেন, বর্তমানে এনআরসি তালিকায় নাম না থাকলে আসাম ‘ইনার লাইন পারমিট’ ইস্যু করছে না। উল্লেখ্য, বেঙ্গল ইস্টার্ন ফ্রন্টিয়ার রেগুলেশন, ১৮৭৪ আইন আনুশারে এক বিশেষ অনুমতি। যা নিয়ে উত্তর পূর্বের তিন রাজ্য অরুণাচল, নাগাল্যান্ড ও মিজোরামে প্রবেশ করতে হয়।

মিজোরামের আসাম কোলাশিব সীমানা দিয়ে প্রত্যেক দিন বেশ কয়েকজন করে এনআরসি তালিকা বহির্ভূত মানুষ সেই রাজ্যে প্রবেশ করছে। এপ্রসঙ্গে কোলাসিবের পুলিশ সুপার ভানলালফাকা রালতে ইন্ডিয়ার এক্সপ্রেসকে বলেন, ‘তল্লাশি তীব্র করা হয়েছে ও এনআরসিতে নাম না থাকলে আসামের বাসিন্দাদের ‘ইনার লাইন পারমিট’ দেওয়া হচ্ছে না।’

নাগাল্যান্ডে আসাম সীমানাতেও নজরদারি বাড়ন হয়েছে বলে দাবি। রাজ্যে প্রবেশের আগে আসামের বাসিন্দাদের নাম এনআরসি তালিকা রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। না থাকলে, বৈধ নাগরিক পরিচয় দেখা হচ্ছে। কিন্তু আবাক করা বিষয়, পরিসংখ্যান বলছে যাদের নাম এনআরসিতে নেই তারাই নাগাল্যান্ডে প্রবেশের চেষ্টা করছেন বেশি। নাগাল্যান্ড মুখ্যসচিব অভিজিৎ সিনহা বলেন, ‘আগের থেকে রাজ্য সীমানায় তল্লাশি বাড়ান হয়েছে। সেপ্টেম্বরের ২ তারিখে জেলা ও স্থানীয় সব প্রশাসনকে এলাকায় নজরদারি বৃদ্ধির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

Post a Comment

0 Comments