About Me

header ads

মৃত নাবালিকার পরিবারকে সাহায্যের আশ্বাস আইনি সেবা কতৃপক্ষের!



ধর্মনগর শহরের পার্শবর্তী পশ্চিম দেওয়ানপাশা গ্রামের ২ নং ওয়ার্ডের এক নির্মীয়মাণ দালান বাড়িতে ঝুলন্ত অবস্থায় এক নাবালিকার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছিল। নাবালিকার মৃতদেহ দেখেই প্রাথমিক ভাবে সন্দেহ জাগে এলাকাবাসীর মনে, হত্যা না আত্ম্যহত্যা তদন্তে নামে পুলিশ, প্রাথমিক তদন্তেই পুলিশি ভুমিকায় সন্দেহ দানাবাঁধে এলাকাবাসীর মনে, এলাকাবাসী এই ঘটনার সুষ্ট ও নিরপেক্ষ তদন্তের দাবী জানান, অবশেষে এলাকাবাসীর চাপে পরে ফরেন্সিক এবং ডগ স্কোয়ার্ডকে খবর দেয় পুলিশ। ঘটনা স্থলে যায় ডগ স্কোয়ার্ড এবং ফরেন্সিক টিম।

ঘটনার তদন্তে নেমে প্রাথমিক পর্যায়ে একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে ধর্মনগর মহিলা থানার ওসি স্বর্না দেববর্মা ও উনার সহযোগীরা। পরদিন অভিযুক্তকে আদালতে সোপর্দ করে চারদিনের পুলিশ রিমান্ডে পাঠানো হয়। সংবাদ লেখা অবদি অভিযুক্তের কাছ থেকে কোন প্রকার তথ্য সংগ্রহ করতে ব্যার্থ পুলিশ।

এদিকে মহিলা থানার তদন্ত প্রক্রিয়া নিয়ে এলাকাবাসী গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং এলাকাবাসীর অভিযোগ ধর্মনগর মহিলা থানার ওসি স্বর্না দেববর্মা ও উনার সহযোগীরা হত্যাকে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছেন। গোপন সন্ধির ফলে প্রকৃত ঘটনা ধামা-চাপা দিতে তৎপর ধর্মনগর মহিলা থানা এমনটাই আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী।

উওর জেলা জুড়ে মহিলা সংক্রান্ত অপরাধ দিন দিন বেড়েই চলেছে, সামাজিক অবক্ষয়ের হাত থেকে রক্ষা পাচ্ছেন না শিশু থেকে বৃদ্ধা কেহই এমন পরিস্থিতিতে ধর্মনগর মহিলা থানার ওসি স্বর্না দেববর্মা ও উনার সহযোগীদের ভূমিকা বরাবরই প্রশ্নের মুখে। পুলিশ প্রশানের এহেন ভূমিকার ফলে জনগন আইনের উপর বিশ্বাস হারাচ্ছেন। 

ধর্মনগর মহিলা থানার ভূমিকায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী সুষ্ট তদন্তের দাবী করছেন। নিরপেক্ষ তদন্ত করে প্রকৃত দোষীদের শাস্তির প্রবল দাবি উঠেছে জনমনে।

অন্যদিকে, উত্তর ত্রিপুরা জেলা আইনি সেবা কতৃপক্ষের পক্ষ থেকে আইন সেবক শ্রীঃ গোপীকা কান্ত দত্ত পশ্চিম দেওয়ানপাশা গ্রাম পঞ্চায়েতের জন প্রতিনিধিদের সাথে কথা বলেন এবং পীড়িতার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে প্রয়োজনীয় আইনি সহায়তা প্রদান এবং সুষ্ট ও নিরপেক্ষ তদন্তের স্বার্থে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহনের আশ্বাস প্রদান করেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য