About Me

header ads

মণিপুরে এনআরসি চাইছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী!

এনআরসি নিয়ে একাধিক বিরোধিতার সম্মুখীন হতে হয়েছে কেন্দ্রের মোদী সরকারকে। তবে এবার বিরোধিতা নয়, মণিপুরের মুখ্যমন্ত্রী চাইছেন এনআরসি হোক তাঁর রাজ্যেও। সোমবার মণিপুরের মুখ্যমন্ত্রী এন বীরেন সিং জানান, শুধু অসম নয়, উত্তর পূর্বের বেশ কিছু রাজ্যেই এনআরসি লাগু হওয়া দরকার।
 
মুখ্যমন্ত্রী জানান ইতিমধ্যেই তাঁর রাজ্যের মন্ত্রিসভায় বিষয়টির প্রয়োজনীয়তা নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। কেন্দ্রের সঙ্গে আলোচনা করে এনআরসি লাগু করার বিষয়টি নিয়ে এগোতে চান তাঁরা। মুখ্যমন্ত্রীর দাবি শুধু তিনি নন, তাঁর রাজ্যের অনেকেই চান এনআরসি লাগু হোক মণিপুরে।

অসমের গুয়াহাটিতে এক সম্মেলনে যোগ দিতে এসে এমনই মন্তব্য করেন মণিপুরের মুখ্যমন্ত্রী। বিজেপি শাসিত কেন্দ্রের পরিষ্কার বার্তাকে তিনি পূর্ণ সমর্থন করেন বলে জানান সিং। তাঁর মতে ভারতের মাটিতে কেন অবৈধ অভিবাসীরা থাকবেন? এতে সাধারণ ভারতীয়রা অনেক সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

এর আগে এনআরসি প্রসঙ্গে বিদেশমন্ত্রক জানায়, এনআরসি একটি পুরোপুরি আইনী-প্রক্রিয়া ও যাদের নাম তালিকা থেকে বাদ পরেছে তাঁরা ‘রাষ্ট্রহীন’ বা ‘বিদেশি’ কোনটাই নয়। বিদেশি সংবাদমাধ্যমের একাংশে এনআরসি সংক্রান্ত কিছু মন্তব্য ঘোরাফেরা করছে যা পুরোপুরি ভূল। ভারত সরকার ১৯৮৫ সালে অসম চুক্তি সই করেছিল যেখানে অসমের নাগরিকদের আগ্রহ ও ইচ্ছাকে গুরুত্ব দেওয়ার শপথ নেওয়া হয়েছিল। অসম অ্যকর্ড ১৯৮৫ সালে ভারত সরকার, অসম সরকার, অল ইণ্ডিয়া অসম স্টুডেন্টস ইউনিয়ন ও অল অসম জন সংগ্রাম পরিষদ মধ্যে সাক্ষরিত হয়েছিল।

সুপ্রিম কোর্ট ২০১৩ সালে এই চুক্তিকে কার্যকরী করার নির্দেশ দিয়েছিল। যার পরবর্তী ধাপে ২০১৫ সালে এই প্রক্রিয়াটির ফের আধুনিকীকরণ হয়। উল্লেখ্য, নআরসির চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশিত হওয়ায় জানা গিয়েছে ১৯.০৬ লক্ষ মানুষ তালিকার বাইরে রয়েছে৷ ফলে তাঁদের ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত৷ প্রাথমিকভাবে ১০.০৬ লক্ষ তালিকার বাইরে রয়েছেন বলে জানা গিয়েছিল। তালিকায় রয়েছে ৩ কোটি মানুষের নাম। যারা বৈধ নাগরিক বলে চিহ্নিত হয়েছেন।

তবে রবিবার এক অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের বক্তব্যে অন্য সুর শোনা যায়। তিনি বলেন এনআরসি নিয়ে অনেক প্রশ্ন উঠছে। একটি বিষয় কেন্দ্রের তরফ থেকে পরিষ্কার করে দেওয়া ভালো, অবৈধ অভিবাসীরা কোনওভাবেই ভারতে থাকার সুযোগ পাবেন না। এই সিদ্ধান্তে অবিচল রয়েছে কেন্দ্র সরকার। তিনি এদিন জানান, ভারতের মাটিতে কোনও অবৈধ অভিবাসীর থাকার অধিকার নেই। তাদের প্রত্যেককে যেভাবেই হোক ভারতের বাইরে যেতে হবে। এনআরসি তালিকায় যাদের নাম নেই, তাদের ভারতে থাকারও কোনও অধিকার নেই।

Post a Comment

0 Comments