About Me

header ads

রাজধানিতে উদ্ধোধন হল বালাজি হেলথ কেয়ার সেন্টারের!

ত্রিপুরা রাজ্যে মেডিক্যাল হাব হবে। আইজিএম হাসপাতাল ও জিবি হাসপাতাল আধুনিকরনের কাজ চলছে। ১০৭ কোটি টাকা খরচ করে কেন্সার হাসপাতাল তৈরি করে নেওয়া হয়েছে। যে কোন সময় উদ্ধোধন করা যাবে। জিবি হাসপাতালে অরও বেশকিছু বিভাগ খোলা হচ্ছে। আগামিবছর তার কাজ সম্পন্ন হয়ে যাবে। কেন্দ্রে বিজেপি সরকার আসার পর মেডিক্যালে ২৫ টি আসন বৃদ্ধি করেছে। রাজ্যে হসপিটাল ম্যানেজমেন্ট কোর্স করার ব্যবস্থা রয়েছে। আগামীতে হসপিটাল ম্যানেজমেন্টদের জন্য শূন্যপদ সৃষ্টি করা হবে। কারন হসপিটাল ম্যানেজমেন্ট কোর্স করা ব্যক্তিকে হাসপাতাল পরিচালনার জন্য রাখা আবশ্যক। বুধবার রাজধানীতে বালাজি হেলথ কেয়ার সেন্টার নামে বেসরকারি নার্সিং হোমের উদ্ধোধন করে এই কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। তিনি আরও বলেন বিধানসভায় বর্তমানে যারা বিরোধীর আসনে রয়েছে তাদের অতি বুদ্ধির কারনে ত্রিপুরা রাজ্যের আরথিক লোকসান হয়েছে।

এই অতি বুদ্ধিমান ব্যক্তি গুলিকে চিহ্নিত করে ২০১৮-র নির্বাচনে   মানুষ তাদের সিদ্ধান্ত জানিয়েছে রাজ্যে ভালো ডাক্তার নেই এমন নয়। মানুষ তার পরও বহিঃরাজ্যে উন্নত চিকিৎসার জন্য ছুটে যায় তার প্রধান কারন সেখানে পরিকাঠামোগত উন্নয়নের পাশাপাশি অন্যান্য দিক গুলির উন্নয়ন করা হয়েছে। কোন রোগীর যেন ভাসাগত সমস্যা না হয় তার জন্য নির্দিষ্ট কর্মী রয়েছে সেখানে। ব্যবসায়ীক চিন্তা ভাবনা ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে সেখানে। ফলে মানুষ রাজ্য থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বহিঃরাজ্যে চলে যায়।

রাজ্যের মানুষকে যেন বহিঃরাজ্যে ছুটতে না হয় বর্তমান সরকার তাই চাইছে  বলেও জানান মুখ্যমন্ত্রী।মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব এইদিন আরও বলেন ত্রিপুরা রাজ্যে ৮ লক্ষ্যের অধিক বেরোজগার নেই। রাজ্যে বেরোজগার রয়েছে ২ লক্ষ্যের নিচে। পূর্বতন রাজ্য সরকার রোজগারের আক্ষরিক অর্থই বুঝত না। তাদের মতে সরকারি চাকুরি একমাত্র রোজগার। বেকার বলাটাই পাপ। এম পাস করা ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করা ছেলে বেকার হতে পারে না। বে রোজগার হতে পারে। তাই বলে বেকার নয়। বেকার মানে কোন কাজের নয়।

অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব ছাড়াও আলচনা করেন সাংসদ প্রতিমা ভৌমিক। উপস্থিত ছিলেন বিধায়ক আশিস কুমার সাহা সহ অন্যান্যরা। এইদিন বালাজি হেলথ কেয়ার সেন্টারের পক্ষ থেকে মুখ্যমন্ত্রীর ত্রান তহবিলের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর হাতে ১ লক্ষ টাকার চেক তুলে দেওয়া হয়। বালাজি হেলথ কেয়ার সেন্টারের চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্য কর্মীদের পাশাপাশি এইদিনের অনুষ্ঠানে সাধারণ মানুষের উপস্থিতিও লক্ষ্য করা যায়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য