About Me

header ads

“ভারত-পাক সব বিষয়ই দ্বিপাক্ষিক, অন্য কাউকে কষ্ট দিতে চাই না”, ট্রাম্পকে বললেন মোদী!

পাকিস্তানের সঙ্গে সমস্ত বিষয়ই দ্বিপাক্ষিক, তৃতীয় পক্ষের মধ্যস্থতার কোনও সুযোগ নেই। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে এ কথা বলেছেন। ৩৭০ ধারার অন্তর্গত জম্মু কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করার পর এই প্রথমবার ট্রাম্পের সঙ্গে মোদীর কথা হয়।

জি-৭ সামিট চলাকালীন আলাদা করে প্রধানমন্ত্রী মোদীর সঙ্গে ট্রাম্পের যে বৈঠক হয়, তাতে মোদী ট্রাম্পকে বলেছেন, “পাকিস্তানের সঙ্গে ভারতের সব বিষয়ই দ্বিপাক্ষিক। তৃতীয় কোনও দেশকে এ ব্যাপারে কষ্ট দিতে চাই না। আমরা আলোচনার মাধ্যমে বিষয়গুলি মিটিয়ে নিতে সক্ষম।”

এর আগে এক মাসের মধ্যে তিনবার ট্রাম্প কাশ্মীর ইস্যুতে মধ্যস্থতার ইচ্ছা ব্যক্ত করেছেন। তবে গত সপ্তাহে আমেরিকা নিজেদের অবস্থান বদলে বলেছে জম্মু কাশ্মীর ভারতের আভ্যন্তরীণ বিষয়। দিল্লি প্রথম থেকেই এ কথাই বলে আসছে।

প্রধানমন্ত্রী মোদী সাংবাদিকদের বলেন, “ভারত ও পাকিস্তান ১৯৪৭ সালের আগে একসঙ্গেই ছিল এবং আমার বিশ্বাস আমরা আমাদের সমস্যা আলোচনা করে মিটিয়ে নিতে পারব। ভারত ও পাকিস্তানের একযোগে দু দেশের জনগণের উন্নতির জন্য কাজ করা উচিত।”

বৈঠকের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময়ে ট্রাম্প বলেন মোদী তাঁকে আশ্বাস দিয়েছেন কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রয়েছে। তিনি বলেন, “আমেরিকা ভারত ও পাকিস্তান দুপক্ষেরই ভাল বন্ধু। আমি মনে করি, ভারত ও পাকিস্তান নিজেরা আলোচনা করে বিষয়টি মিটিয়ে নিতে পারবে।”

ট্রাম্পের এ মন্তব্যের আগে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বলেছিল কাশ্মীরে আটক নিয়ে যে রিপোর্ট আসছে, তাতে তারা উদ্বিগ্ন এবং একইসঙ্গে ব্যক্তি স্বাধীনতাকে সম্মান করার কথাও বলেছিল তারা।

মধ্যস্থতা নিয়ে নিজের অবস্থান থেকে সরে এসে ট্রাম্প এদিন বলেন, “ওরা পাকিস্তানের সঙ্গে কথা বলছে এবং আমি নিশ্চিত ওরা ভাল কিছু করতে সক্ষম হবে।”

গত ২ অগাস্ট ট্রাম্প বলেছিলেন যদি দিল্লি ও ইসলামাবাদ চায়, তাহলে তিনি কাশ্মীর নিয়ে মধ্যস্থতায় রাজি। এ বক্তব্যের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ভারতের তরফ থেকে এ প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করা হয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য