About Me

header ads

গণনা চলাকালীন কৈলাশহর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশের লাঠিচার্জ!

গণনা চলাকালীন হঠাৎ করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে কৈলাশহর কোর্ট চত্বর এলাকা। শাসক দল ও কংগ্রেস কর্মী সমর্থকদের মধ্যে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে হাতাহাতি শুরু হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ লাঠিচার্জ করে। ঘটনাস্থলে যায়  ঊনকোটি জেলা পুলিশ সুপার লাকি চৌহান সহ  মহাকুমা পুলিশ আধিকারিক । মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ বাহিনী।  উভয় পক্ষের সংঘর্ষে কয়েকজন কংগ্রেস ও বিজেপি কর্মী আহত হয়।
এই  ঘটনার জন্য প্রশাসনকে সম্পূর্ণরূপে দায়ী করেছেন প্রাক্তন পি সি সি সভাপতি বীরজিত সিনহা। তিনি আরো অভিযোগ করেন জেলা শাসক তথা জেলা নির্বাচন আধিকারিক হঠাৎ করে মঙ্গলবার রাত্রিবেলা 144 ধারা জারি করে ।  কিন্তু এই 144 ধারার খবর গ্রামাঞ্চলে সঠিকভাবে পৌঁছানো হয়নি।  ফলে গ্রাম থেকে কর্মীসমর্থকরা দলে দলে এসে নির্দিষ্ট স্থানে জড়ো হতে গেলে হেনস্তার শিকার হয়। তাছাড়া দীর্ঘদিন যাবৎ শহরের উত্তর দিকে কংগ্রেস দলের জমায়েত এর স্থান থাকে নির্দিষ্ট জায়গায়।  এতদিন এমনটাই ছিল । কিন্তু হঠাৎ করে মঙ্গলবার রাতে জেলাশাসকের এক আদেশ নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ায় কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে।

ঊনকোটি জেলা পুলিশ সুপার লাকি চৌহান জানান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। সুস্থ ভাবে গণনার কাজ চলছে। ১৪৪ ধারা জারি করায় যাতে কোন সমস্যা না হয় সেই বিষয়টি দেখছে পুলিশ। রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ দায়ের হয়নি।

Post a Comment

0 Comments