About Me

header ads

বর্ধমান স্টেশনের নাম পরিবর্তন নিয়ে রাজ্যের পরামর্শ নেওয়া হয়নি: মমতা

পশ্চিমবঙ্গের নাম বদল নিয়ে কেন্দ্রের সঙ্গে রাজ্যের টানাপোড়েন দীর্ঘদিনের। এমতাবস্থায় রাজ্য সরকারের পরামর্শ ছাড়াই বর্ধমান রেল স্টেশনের নাম বদল নিয়ে এবার সরব হলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার নবান্নে জেলা পারিষদদের সঙ্গে বৈঠক শেষ করে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে স্টেশনের নাম পরিবর্তন নিয়ে ক্ষোভ উগরে দেন মুখ্যমন্ত্রী। মমতার কথায়, বর্ধমানে স্টেশনের নাম পরিবর্তন করে বিপ্লবী বটুকেশ্বর দত্তের নামে করার কেন্দ্রীয় সরকারের যে সিদ্ধান্ত, সে বিষয়ে তিনি একেবারেই অবগত নন। উল্লেখ্য, কয়েক দিন আগে পাটনায় একটি সভায় বর্ধমান স্টেশনের নাম বদল করে বিপ্লবী বটুকেশ্বর দত্তের নামে রাখার পরিকল্পনার কথা জানান কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই।

কেন্দ্রীয় সরকারের এহেন পরিকল্পনা নিয়ে প্রশ্ন তুলে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “কোনও স্টেশনের নাম পরিবর্তন করতে গেলে রাজ্য সরকারের মতামত নিতে হয়। এই প্রস্তাব বিজেপির একান্ত নিজেদের। আমি এই ব্যাপারে কিছুই জানি না। ওরা কখনই রাজ্য সরকারের সম্মতি ছাড়া নাম পরিবর্তন করতে পারে না।” প্রসঙ্গত, শনিবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই পাটনায় স্বাধীনতা সংগ্রামী বটুকেশ্বর দত্তের বাড়িতে যান বটুকেশ্বরের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে। ১৯১০ সালে পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলায় জন্মগ্রহণকারী বিপ্লবী বটুকেশ্বর দত্ত পরবর্তীতে পাটনায় চলে গিয়েছিলেন।

তবে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীর এই পরিকল্পনা নিয়ে ক্ষুদ্ধ মমতা বলেন, “আমিও দু’বারের জন্য কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী ছিলাম। তাই আমি যতদূর জানি, কোনও রাজ্যের কোনও স্টেশনের নাম পরিবর্তন করতে হলে কেন্দ্রীয় সরকারকে রাজ্য সরকারের কাছে অনুমতি নিতে হবে। দলের সঙ্গে সরকারকে গুলিয়ে ফেললে হবে না।”

বিপ্লবী বটুকেশ্বর দত্ত ছিলেন হিন্দুস্থান সোশ্যালিস্ট রিপাবলিকান অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য, যার নেতৃত্বে দিয়েছিলেন চন্দ্রশেখর আজাদ। বিপ্লবী বটুকেশ্বর দত্ত শহিদ ভগৎ সিংয়ের সঙ্গে দিল্লিতে কেন্দ্রীয় আইনসভায় বোমা ছোড়ার অপরাধে গ্রেফতারও হয়েছিলেন। কিন্তু রাজ্যের নাম হোক কিংবা স্টেশন, নাম পরিবর্তন নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্যের সংঘাত যে বেড়েই চলেছে, এবার ফের তা প্রকাশ্যে এল।

Post a Comment

0 Comments