About Me

header ads

নিখোঁজ ক্যাফে কফি ডে’র সহ-প্রতিষ্ঠাতা!

সোমবার থেকে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ ভারতের বৃহত্তম কফি চেন ‘ক্যাফে কফি ডে’-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা ভি জি সিদ্ধার্থ। কর্ণাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এস এম কৃষ্ণর জামাই ভি জি সিদ্ধার্থ সোমবার রাতেই ম্যাঙ্গালুরু থেকে নিখোঁজ হয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে। পুলিশ সূত্রে খবর, চিকমাগালুরুতে ব্যবসায়িক ভ্রমণে গিয়েছিলেন বছর পঞ্চান্নর সিদ্ধার্থ। শেষবার তাঁকে নেত্রবতী নদীর উপর উল্লাল সেতুর কাছে দেখা যায়। কিন্তু এরপর থেকে আর কোনও খবর পাওয়া যায়নি ক্যাফে কফি ডে’র সহ-প্রতিষ্ঠাতার।

ভি জি সিদ্ধার্থের বেপাত্তা হওয়া ঘিরে তৈরি হয়েছে রহস্য। সংবাদসংস্থা পিটিআই সূত্রে খবর, সিদ্ধার্থ তাঁর গাড়ির ড্রাইভারকে নেত্রবতী নদীর ব্রিজের কাছে নিয়ে যেতে বলেন এবং তিনি এও বলেন যে তিনি একটু ঘুরে আসছেন। দক্ষিণ কন্নড় থানার পুলিশ সংবাদসংস্থাকে বলেন, “সিদ্ধার্থ তাঁর ড্রাইভারকে তাঁর ফেরা অবধি অপেক্ষা করতে বলেছিলেন। দু’ঘন্টা পরেও তিনি ফিরে না এলে তাঁর গাড়ির চালক পুলিশের কাছে আসেন এবং নিখোঁজের অভিযোগ দায়ের করেন”।

এদিকে, নিখোঁজ রহস্যের তদন্তের সূত্রেই তদন্তকারীদের হাতে আসে একটি চিঠি। ২৭ জুলাই ক্যাফে কফি ডে’র বোর্ড অফ ডিরেক্টরস এবং ক্যাফে কফি ডে ‘পরিবারকে’ উদ্দেশ্য করে সিদ্ধার্থের একটি চিঠিতে লেখা “সঠিকভাবে একটি লাভজনক ব্যবসায় উন্নিত করতে গিয়ে বারবার ব্যর্থ হচ্ছি। যাঁরা আমার উপর আস্থা রেখেছিলেন তাঁদের হতাশ হতে দেখে আমি খুবই দুঃখিত”। চিঠির একটি জায়গায় সিদ্ধার্থ লিখেছেন, “আমি দীর্ঘ সময় ধরে লড়াই করেছি, তবে এবার হাল ছেড়ে দিতে বাধ্য হচ্ছি। কারণ ব্যাক্তিগত অংশীদারীত্ব ফিরিয়ে দেওয়ার যে চাপ আসছিল তা আমি নিতে পারছি না। ছ’মাস আগে এক বন্ধুর থেকে মোটা অঙ্কের টাকা ধার নিয়ে সেই লেনদেন মেটানোর চেষ্টা করি। কিন্তু অন্যান্য ঋণদাতাদের তীব্র চাপ পরিস্থিতি আরো জটিল করে তুলছে”।

ঘটনার খবর পেয়েই মঙ্গলবার কর্ণাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এস এম কৃষ্ণর বেঙ্গালুরুর বাড়িতে যান কর্ণাটকের নব নিযুক্ত মুখ্যমন্ত্রী বি এস ইয়েদুরাপ্পা এবং কংগ্রেস নেতা ডি কে শিবকুমার। এস এম কৃষ্ণর বেঙ্গালুরুর বাসভবনে গিয়ে দেখা করেন কংগ্রেসের আরেক নেতা বি এল শঙ্কর। প্রসঙ্গত, ইউপিএ সরকার দ্বিতীয়বারের জন্য ক্ষমতায় আসার পর ২০০৯ সাল থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত বিদেশমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছিলেন এস এম কৃষ্ণ। সেইসঙ্গে কর্ণাটকের ষষ্ঠদশতম মুখ্যমন্ত্রী হিসেবেও দায়িত্বভার বহন করেছিলেন এস এম কৃষ্ণ।

তবে আকস্মিক এই ঘটনায় হতচকিত সব মহল। সংবাদসংস্থাকে দেওয়া একটি বিবৃতিতে কংগ্রেস নেতা ইউ টি কাদের বলেন, “খবরটি পেয়ে আমি হতবাক হয়ে গিয়েছিলাম। পুলিশ কমিশনার এবং জেলা প্রশাসনকে তল্লাশি অভিযান চালানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। স্থানীয়দের সহযোগিতা নিয়েই অভিযান চালানো হচ্ছে।” উল্লেখ্য, কংগ্রেসের এই নেতা নিজেই এই তল্লাশি অভিযানের তদারকি চালাচ্ছেন।

Post a Comment

0 Comments