About Me

header ads

পিএসি কমিটির চেয়ারম্যান হলেন বহরমপুরের সাংসদ অধীর!

কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরীর মুকুটে নয়া পালক। পাবলিক অ্যাকাউন্ট কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে নিযুক্ত করা হল বহরমপুরের সাংসদকে। মূলত প্রধান বিরোধী দলের প্রতিনিধি এই কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পান। আগে এই পদে ছিলেন কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে। এবার এই কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে অধীরের নাম প্রস্তাব করেছিল কংগ্রেস।উল্লেখ্য, এবারও লোকসভা নির্বাচনে নিজের গড় বহরমপুরে জয়ের ধারা অটুট রেখেছেন প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী।

১৯৯৯ সাল থেকে তিনি এ আসনে কংগ্রেসের হয়ে জিতে আসছেন। ইউপিএ আমলে ২০১২ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত রেলের রাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন অধীর। মুর্শিদাবাদের বেতাজ বাদশাকে এবার কংগ্রেসের সংসদীয় দলের নেতা হিসেবে নির্বাচিত করেছে গান্ধী পরিবার। সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনের পর সংসদে দাঁড়িয়ে যেভাবে ঝাঁঝালো সুরে বক্তব্য পেশ করতে দেখা গিয়েছে অধীরকে, তাতে মন ভরেছে ইউপিএ চেয়ারপার্সন সোনিয়া গান্ধীরও। সংসদে অধীরের বক্তব্য শেষে সোনিয়াকে বলতেও শোনা গিয়েছে, ‘‘দারুণ বলেছেন’’।

৬৩ বছর বয়সী অধীরের জনপ্রিয়তা আন্দাজ করা যায় একটা হিসেব থেকে। গোটা রাজ্যে কংগ্রেস যখন অপ্রাসঙ্গিক, সে সময়েই বহরমপুর থেকে তিনি জিতেছেন ৮০ হাজার ভোটে। ১৯৫৬ সালের ২ এপ্রিল বহরমপুরে জন্মগ্রহণ করেন অধীর চৌধুরী। বামফ্রন্ট শরিক আরএসপির গড় বহরমপুর থেকে ১৯৯৯ সালে সাংসদ নির্বাচিত হন তিনি। উল্লেখ্য, ১৯৫১ সালের পর থেকে এ আসনে কখনও জেতেনি কংগ্রেস। ১৯৫২ সাল থেকে এ আসনে জিতত আরএসপি-ই।

অন্যদিকে, পাবলিক এস্টিমেটস কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে বাছা হয়েছে বিজেপির গিরিশ ভালচন্দ্র বাপতকে। পাবলিক আন্ডারটেকিংস কমিটির চেয়ারপার্সন হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছে মীনাক্ষী লেখিকে। এসসি-এসটি উন্নয়ন কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছে বিজেপির কীর্তি প্রেমজিভাই সোলাঙ্কিকে। ওবিসি কল্যাণ কমিটির চেয়ারম্যান নির্বাচিত করা হয়েছে সাংসদ গণেশ সিংকে।

Post a Comment

0 Comments