About Me

header ads

‘হিটলার’ মমতার পদত্যাগ করা উচিত: মুকুল রায়

মুখ্যমন্ত্রীর কুর্সি থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পদত্যাগ দাবি করলেন মুকুল রায়। রাজ্যের সামগ্রিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় অচলাবস্থার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দায়ী করলেন অধুনা বিজেপি নেতা মুকুল রায়। তৃণমূল সুপ্রিমোর একদা প্রধান সেনাপতির দাবি, মমতা হিটলারের মতো আচরণ করছেন। মুকুলের কটাক্ষ, “মমতাকে দেশ ও আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি সামলাতে হয়। এরওপর নিজের হাতে ১১ টা দফতর রয়েছে। বাংলার মানুষের মঙ্গলের জন্য তাই স্বরাষ্ট্র ও স্বাস্থ্যমন্ত্রক থেকে তাঁর পদত্যাগ করা উচিত”।
এনআরএসকাণ্ডে রাজ্য জুড়ে চিকিৎসকদের প্রতিবাদের মধ্যেই বৃহস্পতিবার হঠাৎ এসএসকেএম পরিদর্শনে যান মুখ্যমন্ত্রী তথা স্বাস্থ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চার ঘণ্টার মধ্যে কর্মবিরতি তুলে কাজে যোগ না দিলে ‘প্রোফাইল দেখা হবে’ বলে হুঁশিয়ারি দিতেই হাসপাতালের ইমারর্জেন্সি বিভাগ চালু হয়ে যায়। এরপর আন্দোলনরত চিকিৎসকরা আরও ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন, রাজ্যের নানা প্রান্ত থেকে সরকারি ডাক্তারদের ইস্তফার খবর আসতে শুরু করে। এদিন মুকুল রায় বলেন, “এসএসকেএম হাসপাতালে মুখ্যমন্ত্রী যে আচরণ করলেন তা হিটলারকেও হার মানায়। রোগীর পরিষেবা পাওয়া উচিত। কিন্তু, হাসপাতালে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে কেন বাইরের লোকের হাতে নিগৃহীত হতে হবে? কোনও ডাক্তারই নিজস্ব দায়িত্ব বোধ থেকে রোগীকে বঞ্চিত করেন না। তাঁদের সঙ্গে যে আচরণ হচ্ছে তার বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেয়নি এই সরকার। কারণ, যারা হামলা করেছে, তারা তাঁদের লোক”। উল্লেখ্য, মঙ্গলবারই মুকুল বলেছিলেন, তৃণমূলের নেতৃত্বে এনআরএসে ডাক্তার নিগ্রহ ঘটেছে এবং একটি বিশেষ সম্প্রদায়কে আড়াল করতে চাইছে সরকার।

এদিন মমতা বলেন, আন্দোলনকারীরা সবাই ডাক্তার নয়, এরমধ্যে বহিরাগতরাও রয়েছে। মমতার এমন তত্ত্বের বিরোধিতা করেছেন মুকুল। মুকুলের মন্তব্য, উনি (মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) কথায় কথায় বলেন বহিরাগত। বহিরাগতরা কি মঙ্গলগ্রহ থেকে আসে নাকি? ওখানে তো ফুটেজ রয়েছে। উনি তো স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, উনি চিহ্নত করুন না, কোন বহিরাগত ওখানে আন্দোলন করছে। বাচ্চা ছেলে জুনিয়র ডাক্তার হিসাবে চাকরি করছেন। আর উনি বলছেন, ২৫ লক্ষ টাকা খরচ হচ্ছে ডাক্তার বানাতে! এটা কি ওনার পকেটের টাকা নাকি। এ তো জণগনের টাকা। তাঁরা তাদের মেধায় এই জায়গায় এসে পৌঁছেছেন। তাই আমি মনে করি মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত”।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য