About Me

header ads

আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি বজায় রাখতে ব্য়র্থ পশ্চিমবঙ্গ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক

“আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি বজায় রাখতে ব্য়র্থ” হয়েছে রাজ্য়। রবিবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে এভাবেই দ্ব্য়র্থহীন ভাষায় বার্তা দেওয়া হয়েছে নবান্নকে। লোকসভা ভোটের পর “লাগামহীন সন্ত্রাসের” পরিপ্রেক্ষিতে “ব্য়াপক উদ্বেগপ্রকাশ” করে এ কথা জানিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।

রাজ্য়ের পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলতে সোমবারই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দেখা করছেন রাজ্য়পাল কেশরী নাথ ত্রিপাঠী।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফ থেকে বলা হয়েছে, “গত কয়েকসপ্তাহ ধরে যে লাগাতার সন্ত্রাস চলছে তাতে রাষ্ট্রযন্ত্রকে কাজে লাগিয়ে আইনের শাসন কায়েম করতে ব্য়র্থ হয়েছে রাজ্য়। একই সঙ্গে মানুষের আস্থা অর্জন করতেও ব্য়র্থ রাজ্য়।”

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফ থেকে যে অ্য়াডভাইজরি জারি করা হয়েছে, তাতে আইনশৃঙ্খলা ও শান্তি ফিরিয়ে আনার জন্য় সমস্ত ব্য়বস্থা নিতে বলার সঙ্গে সঙ্গে আরও বলা হয়েছে, “যে সমস্ত আধিকারিকরা দায়িত্ব পালনে গাফিলতি করেছেন তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্য়বস্থা নেওয়ার অনুরোধ করা হচ্ছে।”

উত্তর ২৪ পরগনার সন্দেশখালিতে তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপির সংঘর্ষের জেরে তিনজনের মৃত্য়ুর ঘটনার পরদিনই এই পদক্ষেপ করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। শনিবার সন্দেশখালির সংঘর্ষই লোকসভা ভোটের পর হিংসার সবচেয়ে বড় ঘটনা। এবারের ভোটে রাজ্য়ের ৪২টি আসনের মধ্য়ে ১৮টিতে জিতেছে বিজেপি।

সন্দেশখালি বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত। এখানে তৃণমূল কংগ্রেসের নুসরত জাহান বিজেপির সায়ন্তন বসুকে হারিয়েছেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য