About Me

header ads

প্রধানমন্ত্রীর নাম করে প্রতারণা: গ্রেফতার যুবক!

প্রধানমন্ত্রীর বিনামূল্যে ল্যাপটপ প্রকল্পের ভাঁওতা দিয়ে ১৫ লক্ষ নাগরিকের ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে এক আইআইটি পাশ যুবককে। এর জন্য একটি ভুয়ো ওয়েবসাইটও বানিয়েছিল ধৃত যুবক। দাবি করেছিল ২ কোটি যুবককে বিনামূল্যে ল্যাপটপ দেওয়া হবে।

পুলিশ জানিয়েছে, রাকেশ জাঙ্গিড নামে ওই ব্যক্তি মাত্র দু দিনে ১৫ লক্ষ নাগরিকের ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নেয়। এর জন্য সে হোয়াটস্অ্যাপের মাধ্যমে মিথ্যা তথ্য ছড়িয়েছিল। দিল্লি পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, মেক ইন ইন্ডিয়ার লোগো ব্যবহার করে একটি ভুয়ো মাল্টিমিডিয়া মেসেজ ওয়েবসাইটে পোস্ট করা হয়, যাতে বিনামূল্যে ল্যাপটপ পাওয়ার জন্য নথিভুক্তির আহ্বান জানানো হয়।

পুলিশের তরফ থেকে আরও জানানো হয়েছে বিজেপির লোকসভায় জয়কে কাজে লাগিয়ে আরও বেশি লোককে নথিভুক্ত করার চেষ্টা করছিল অভিযুক্ত।

ওয়েবসাইটে প্রধানমন্ত্রীর একটি ফোটো দিয়ে ট্যাগলাইন বানানো হয়- “প্রধানমন্ত্রী মুফত ল্যাপটপ বিতরণ যোজনা ২০১৯”। ওয়েবসাইটের ভিজিটরদের কাছ থেকে জানতে চাওয়া হয় তাঁদের নাম, বয়স, ফোন নম্বর এবং তাঁরা কোন রাজ্যের বাসিন্দা।

আইপি অ্যাড্রেস ট্র্যাক করে রাজস্থানে নাগৌর জেলা থেকে ধৃতকে গ্রেফতার করে দিল্লি পুলিশ।

সাইবার টিমের আধিকারিকরা জানিয়েছেন তাঁদের কাছে এ বিষয়ে কোনও অভিযোগ জমা পড়েনি। একটি নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটের দিকে ধাবমান জনতার ভিড় দেখে তাঁদের সন্দেহ হয়।

জানা গিয়েছে, এ বছরই আইআইটি পাশ করেছেন জাঙ্গিড। হায়দারাবাদে একটি বেসরকারি সংস্থায় কাজে যোগ দেওয়ারও কথা হয়েছিল তাঁর।

পুলিশের দাবি অভিযুক্ত জাঙ্গিড জানিয়েছে সে ওয়েবসাইটের ক্রমবর্ধমান ট্র্যাফিকের মাধ্য়মে বিজ্ঞাপন থেকে অর্থোপার্জন করতে চেয়েছিল। তবে পুলিশ জানিয়েছে, লোকজনের ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে সেগুলি সাইবার অপরাধীদের কাছে বিক্রি দেওয়ার পরিকল্পনাও ছিল তার।

পুলিশ জানিয়েছে এত বেশি সংখ্যক পেজ ভিউ দেখিয়ে টাকা রোজগার করছিল জাঙ্গিড।