About Me

header ads

টিডিপি-র চার রাজ্য়সভা সাংসদ বিজেপিতে!

বড় ধাক্কা খেলেন চন্দ্রবাবু নাইডু। তাঁর দলের ৬ জন রাজ্য়সভা সাংসদের মধ্য়ে ৪ জন বিজেপিতে যোগ দিলেন। বিজেপির কার্যকরী সভাপতি জেপি নাড্ডার উপস্থিতিতে এই দলবদলের ঘটনা ঘটেছে।

নাড্ডা তেলুগু দেশমের চারজনকে স্বাগত জানিয়ে বলেছেন আমি ওঁদের নিশ্চিত করে জানাচ্ছি যে বিজেপি ইতিবাচক এবং সকলকে সঙ্গে নিয়ে চলার রাজনীতিতে বিশ্বাস করে।
 
টিডিপির সাংসদ সি এম রমেশ, ওয়াই সত্য়নারায়ণ চৌধরি, টিজি ভেঙ্কটেশ এবং গরিকাপতি মোহন রাও রাজ্য়সবার সভাপচি এম বেঙ্কাইয়া নাইডুকেও তাঁদের দলবদলের কথা লিখিত ভাবে জানান। টিডিপি প্রধান চন্দ্রবাবু নাইডু এখন ছুটি কাটাতে ইউরোপ গিয়েছেন। সে সময়েই এই ঘটনা ঘটল।

কুর্নুলের বেঙ্কটেশ জানিয়েছেন, রয়ালসীমা এলাকার উন্নয়নের জন্য় আমি বিজেপিতে যোগ দিতে চাই। বিজেপিও চায় রাজ্য়সভায় নিজেদের শক্তিবর্ধন করতে, তাই আমি রাজি হয়েছি। কিছুটা সময় লাগবে। আমি অবশ্য়ই টিডিপি ছাড়ব।

বেলা দুটোর কিছু পরে এ নাটকের শুরু। চার সাংসদ রাজ্য়সভার চেয়ারম্য়ান বেঙ্কাইয়া নাইডুর কাছে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন। রাজ্য়সভায় মোট ৬ জন টিডিপি সাংসদ। তার মধ্য়ে চারজন মানে দুই তৃতীয়াংশ। এর ফলে তাঁর দলত্য়াগবিরোধী আইনের মুখোমুখি হওয়া এড়াতে পারবেন। সূত্র মারফৎ জানা গিয়েছে, রমেশ ও চৌধরি শুরুতে দলত্য়াগ করেন। এর পর দলত্য়াগ বিরোধী আইন এড়াতে তাঁরা নিজেদের পক্ষে টেনে নেন বেঙ্কটেশ ও মোহন রাওকে।

রমেশের বিরুদ্ধে বর্তমানে আয়কর তদন্ত চলছে। অন্য়দিকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত কেন্দ্রীয় মন্ত্রী থাকা চৌধরি ব্য়াঙ্ক জালিয়াতির মামলায় সিবিআই ও ইডির নজরে রয়েছেন।

অন্ধ্রপ্রদেশের টিডিপি সভাপতি কালা ভেঙ্কট রাও জানিয়েছেন দলের প্রধান চন্দ্রবাবু নাইডু তাঁকে পাঠানো এক বার্তায় সাংসদ ভাঙানোর বিজেপির চেষ্টার নিন্দা করেছেন। তবে টিডিপি-র সূত্র মোতাবেক রমেশ এবং চৌধরি দুজনেই নাইডু ঘনিষ্ঠ এবং সম্ভবত তাঁরা নিজেদের পরিকল্পনার কথা আগেই নাইডুকে জানিয়েছিলেন।

এবারের লোকসভা ও বিধানসভা ভোটে অন্ধ্রপ্রদেশে ব্য়াপক হারের মুখে পড়েছে তেলুগু দেশম পার্টি। লোকসবায় তাদের সাংসদের সংখ্য়া এখন মাত্র তিন। বুধবার লোকসভায় টিডিপি নেতা গাল্লা যাগব এবং পার্টির হুইপ রামমোহন নাইডু নবনির্বাচিত অধ্য়ক্ষ ওম বিড়লাকে পূর্ণ সমর্থন জানান এবং একই সঙ্গে বলেন নরেন্দ্র মোদী সরকারকে সবরকমের সহযোগিতা করবেন তাঁরা। ভোটের আগে টিডিপি যে মোদী-বিরোধী অবস্থান নিয়েছিল বর্তমান ভূমিকা তার সম্পূর্ণ বিপরীত।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য