About Me

header ads

বিলথৈ উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ছাত্রীদের অসুস্থতায় এলাকায় চাঞ্চল্য!

পানিসাগর মহকুমার বিলথৈ উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়ে একই সাথে একই শ্রেনীর সাত ছাত্রীর  অসুস্থতায় গোটা এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। অসুস্থ ছাত্রীদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাদের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কা জনক হওয়ায় ধর্মনগর জেলা হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। চিকিৎসকের বক্তব্য এংজাইটি থেকে এই ঘটনা ঘটতে পারে। তবে এক সঙ্গে এতজন ছাত্রীর অসুস্থ হওয়ার ঘটনা পরীক্ষা করে দেখা হবে বলে জানান চিকিৎসক।

খবর পেয়ে পানিসাগরের মহকুমা শাসক এল• ডার্লং  হাসপাতালে ছুটে যান।জানা গেছে শুক্রবার প্রতিদিনের মত বিদ্যালয়ের পঠনপাঠন শুরু হওয়ার কিছু সময় পরেই নবম শ্রেনীর কিছু ছাত্রী শারীরিক অসুস্থতা অনুভব করে। মূলত তাদের বুকে ব্যাথা ও জোরে জোরে শ্বাস নিতে লক্ষ্য করা যায়। সঙ্গে সঙ্গে বিদ্যালয় কতৃপক্ষ ও পানিসাগর অগ্নি নির্বাপক দপ্তরের সহযোগিতায় একই শ্রেনীর সাত ছাত্রীকে পানিসাগর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। শুরু হয় চিকিৎসা।

এই খবর পেয়ে পানিসাগরের মহকুমা শাসক এল• ডার্লং  হাসপাতালে ছুটে আসেন। এখন পর্যন্ত একই শ্রেনীর সাত ছাত্রীর এভাবে আকস্মিক অসুস্থতার প্রকৃত কারন খুজে  পাওয়া যায় নি। জানা গেছে বিলথৈ উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীতে প্রায় ১০৪ জন ছাত্রছাত্রী রয়েছে। ফলে এক ক্লাসরুমে সকলের পক্ষে ক্লাস করা সম্ভব হয় না। তাই নবম শ্রেণীর কিছু ছাত্রছাত্রীদের বৃহস্পতিবার বিদ্যালয়ের অন্য একটি রুমে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল। কিন্তু  স্থানান্তরিত করা নতুন রুমটি দির্ঘদিন বন্ধ ছিলো। পাশাপাশি এই রুমটির সাথেই বিজ্ঞান বিভাগের ল্যাব থাকায় ঐ রুম থেকে নির্গত কিছু গ্যাস এই রুমে আসে বলে ধারনা করা হচ্ছে । এটাও জানা  গেছে এই নতুন রুমে এসে বৃহস্পতিবারও কিছু ছাত্রী অসুস্থতা অনুভব করছিল । পানিসাগর  মহকুমার বিলথৈ উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়ে একই সাথে একই শ্রেনীর সাত ছাত্রীর  অসুস্থতায় গোটা এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।শুক্রবার  স্কুল শুরু হওয়ার কিছু সময় পরেই স্থানান্তরিত রুমে নবম শ্রেণীর পঠরতা সাত ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পরে।  এক ছাত্রী জানান প্রেয়ার করার পর ক্লাস রুমে এলে এক ছাত্রী অসুস্থতা বোধ করে। তাঁর পরেই বাকীরাও অসুস্থতা বোধ করতে থাকে । বুকে ব্যাথা ও শ্বাস প্রশ্বাস নিতে অসুবিধা হচ্ছিল বলে জানায় চিকিৎসারত এক ছাত্রী।

পাশাপাশি কিছু কিছু ছাত্রছাত্রীরা জানিয়েছেন স্থানান্তরিত রুমটির পাশেই একটি গাছে বৃহস্পতিবার  তারা বিশালাকার একটি পেঁচা দেখেছিল। হয়তো তা থেকেই ভয়ভীতির সঞ্চার  হয়েই ছাত্রীরা আকস্মিক অসুস্থতার শিকার হয়। এদিকে চিকিৎসক জানান এংজাইটি থেকে এই ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে। তবে একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হওয়ায় বিষয়টি অনুধাবন করতে হবে। তবে প্রত্যেকের অবস্থা স্থীতিশীল বলে জানান তিনি।

যদিও বিলথৈ উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় কমপ্লেক্সটি চারিদিকে অগোছালো অবস্থায় রয়েছে।  বিশাল বিশাল গাছ গাছালিতে ভরে রয়েছে স্কুলটি । এই ক্ষেত্রে বিদ্যালয় কতৃপক্ষের পরিস্কারের উদ্যোগে ঘাটতি রয়েছে বলে জানা গেছে। যা বিদ্যালয়ের অধ্যয়নের জন্য আসা ছাত্রছাত্রীদের বিপদজনক পরিবেশের জন্ম দিয়েছে । দুই ছাত্রীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের ধর্মনগর  জেলা হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে । বর্তমানে তাদের চিকিৎসা চলছে ধর্মনগর জেলা হাসপাতালে। কি কারনে এই ঘটনা ঘটল তা ক্ষতিয়ে দেখার দাবী উঠেছে।

Post a Comment

0 Comments