About Me

header ads

ত্রিপুরা বিজেপির বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ!

রাজ্যের বিজেপি মনোনীত প্রার্থী প্রতিমা ভৌমিকের বিরুদ্ধে নির্বাচনী প্রচার চালানোর মাঝে ভারতীয় সেনা এবং বালাকোট এয়ার স্ট্রাইক নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করার অভিযোগ আনল ত্রিপুরা কংগ্রেস। মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিককে লেখা এক চিঠিতে ত্রিপুরা কংগ্রেসের ভাইস প্রেসিডেন্ট তাপস দে অভিযোগ করেছেন, ৩১ মার্চ নির্বাচনী প্রচারে বিজেপির পশ্চিম ত্রিপুরার প্রার্থী বালাকোটের এয়ার স্ট্রাইক এবং ভারতীয় সেনা প্রসঙ্গে অশালীন মন্তব্য করেছেন।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, “প্রার্থী নির্বাচনের আদর্শ আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন। আমরা আশঙ্কা করছি, তাঁর মন্তব্য দেশের গণতান্ত্রিক চরিত্রে আঘাত হানতে পারে”। সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া এক ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে প্রতিমা ভৌমিক ত্রিপুরার কালীনগর গ্রামের এক জনসভায় বলছেন বালাকোটে সার্জিকাল স্ট্রাইক ঘটানোর ফলেই পাকিস্তানিরা মোদীকে তাঁদের মৃত্যুর জন্য দায়ী করেছেন। জনসভায় উপস্থিত দর্শকদের লক্ষ করে তিনি বলেছেন, “ওরা প্রমাণ চাইছিল। আপনারাই বলুন প্রমাণ দেওয়ার দরকার আছে আর? ওদের মরতেই হত, মরেছে”। কংগ্রেসের অভিযোগ, বালাকোটের এয়ার স্ট্রাইককে মোদীর কৃতিত্ব হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, মার্চে নির্বাচন কমিশনের তরফে নির্দেশিকা জারি করে বলা হয়েছিল কোনও রাজনৈতিক দল যেন নির্বাচনী প্রচারে প্রতিরক্ষা দফতর অথবা ভারতীয় সেনা সংক্রান্ত কোনও মন্তব্য না করেন। নির্বাচন কমিশনের তরফে আরও স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছিল ঐতিহাসিক কোনও ঘটনা অথবা যুদ্ধের উল্লেখ করা যেতে পারে তবে তা বিশেষ কোনও রাজনৈতিক দলের কৃতিত্ব হিসেবে প্রচার করা যাবে না।

ত্রিপুরা বিজেপির মুখপাত্র নবেন্দু ভট্টাচার্য অবশ্য কংগ্রেসের তরফে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। বলেছেন, “যারা ভারতীয় সেনার প্রশংসা সহ্য করতে পারেন না, তারা বিশ্বাসঘাতক এবং দেশদ্রোহী। লোকসভা নির্বাচনে মানুষ তাঁদের মুখের মতো জবাব দেবেন”।

বিভিন্ন রাজনৈতিকদলের বিরুদ্ধে নির্বাচনী আদর্শ আচরণবিধি লঙ্ঘনের প্রায় ৪৪টি অভিযোগ এসেছে ত্রিপুরায়।