About Me

header ads

ক্ষমতায় এলে ২২ লক্ষ চাকরি, দেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন রাহুল

গরিবদের বছরে ৭২ হাজার টাকা সাহায্যের প্রতিশ্রুতির পর এবার ২২ লক্ষ চাকরি দেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন রাহুল গান্ধী। বিশ্লেষকদের মতে, রাফালে থেকে শুরু করে নোট বাতিল অস্ত্র তেমন কাজ করছে না। তাই মোদি সরকারের দুর্বল জায়গা ‘চাকরি’কে হাতিয়ার করেছেন কংগ্রেস সভাপতি।

আগেও দেশে কর্মসংস্থান নিয়ে মোদি সরকারকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছে কংগ্রেস। একাধিক সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে দেশে কর্মসংস্থান বৃদ্ধিতে সেভাবে সফল নয় মোদি সরকার। ক্রমশ বাড়ছে শিক্ষিত বেকারদের সংখ্যা। ফলে যে যুবকরা ‘মন্দির-মসজিদ’ ভুলে উন্নয়নের আশায় মোদিকে ভোট দিয়েছিলেন, তাঁরা কিছুটা বিরক্ত। সরকারের এই ব্যর্থতাই কাজে লাগাতে চাইছেন রাহুল।

সূত্রের খবর, রাফালে বা জিএসটি-র মতো বিষয় ছেড়ে কর্মসংস্থান নিয়ে সরকারকে বেকায়দায় ফেলার কথা রাহুলের কাছে তুলে ধরেছেন উপদেষ্ঠারা। রবিবার, একটি টুইট করে রাহুল লেখেন, “বিভিন্ন সরকারি বিভাগে এই মুহূর্তে ২২ লক্ষ শূন্যপদ রয়েছে। ক্ষমতায় এলে ৩১ মার্চ, ২০২০-র মধ্যেই সেগুলি পূরণ করব।”

বিশ্লেষকদের মতে, কংগ্রেসের গায়ে নরমপন্থী ও তোষণকারীর তকমা বরাবরই ছিল। তাই এবারে ‘নরম হিন্দুত্ব’ থেকে শুরু করে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সুর চড়ানো শুরু করেছে শতাব্দী প্রাচীন দলটি।

একইভাবে মোদির উন্নয়নের বিরুদ্ধে চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন রাহুল। উল্লেখ্য, গত মার্চ মাসে, দেশের ২০ শতাংশ সবচেয়ে গরিব পরিবারকে প্রতিবছর ৭২ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। অর্থাৎ, মাসে ৬ হাজার টাকা ব্যাংক অ্যাকাউন্টে সরাসরি দেওয়া হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন কংগ্রেস সভাপতি। সব মিলিয়ে কল্পতরু রাহুল কতটা ভোটারদের কাছে টানতে পারবেন তা জানা যাবে ২৩ মার্চ।