About Me

header ads

একাধিক আরটিআই-এর আবেদন করলেই সরকারি পদক্ষেপের হুমকি!

সামাজিক ন্যায়বিচার বিভাগের প্রতিমন্ত্রী দিলীপ কাম্বলে। আর তিনিই  কি না একাধিক আরটিআই ফাইল করা ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সরকারি পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য ইন্ধন যোগাচ্ছেন সরকারের প্রতিবন্ধী বিভাগের কমিশনারকে।

প্রতিবন্ধী দফতরের কমিশনারকে লেখা ১৯ মার্চের চিঠিতে আরএম পরদেশী জানিয়েছেন, “শোলাপুরের বাসিন্দা দীপক পাটেল আর্জি জানিয়েছেন প্রতিবন্ধীদের স্কুল সংক্রান্ত একাধিক আরটিআই করা হলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপ নিক সরকার”।

পুনের মহারাষ্ট্র স্টেট ইলেক্ট্রিসিটি ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড (এমএসইডিসিএল) এর একটি ঘটনা উল্লেখ করে  পাটেল জানিয়েছিলেন সুপ্রিম কোর্ট এবং সেন্ট্রাল ইনফর্মেশন কমিশনার একের বেশি আরটিআই করলে আবেদনকারীর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা করতে পারবে।

পরদেশী জালিয়েছেন এমএসইডিসিএল নির্দেশিকা অনুযায়ী একাধিক আরটিআই ফাইল করা ব্যক্তিদের সম্পর্কে সমস্ত তথ্য জোগাড় করে রাখতে হবে। এবং তাদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিবেক ভেলাঙ্কার, পুনের এক আরটিআইকর্মী এই নির্দেশিকাকে ‘বেআইনি’ আখ্যা দিয়েছেন। বলেছেন, “এমএসইডিসিএল একটি বেআইনি নির্দেশিকা জারি করেছিল। আমরা প্রতিবাদ করায় নির্দেশিকা শেষমেশ তুলে নেওয়া হয়। তথ্যের অধিকার আইনের প্রতি সরকারের যে কতটা নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি, তা-ই প্রতিফলিত হয় এর দ্বারা”।
 
প্রতিবন্ধী দফতরের কমিশনার ডাঙ্গে অবশ্য জানিয়েছেন, “আদর্শ আচরণবিধি চালু হয়ে যাওয়ায় নির্দেশিকা বাতিল করে দেওয়া হয়েছে”।