About Me

header ads

মাসুদ আজহার ইস্যুতে ‘ইতিবাচক’ চিন!

মাসুদ আজহারকে কালো তালিকাভুক্ত করার প্রক্রিয়া ইতিবাচক দিকে এগিয়েছে, এমনটাই দাবি করল চিন। রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা বিষয়ক কমিটিতে আজহারকে কালো তালিকাভুক্ত করার প্রস্তাব নিয়ে বিভিন্ন দলের সঙ্গে আলোচনা চালিয়েছে চিন। এ ইস্যুতে ইতিবাচক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এ ব্যাপারে সবটাই জানে। এমন দাবিই করেছেন চিনের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র গেং শুয়াং।

‘ইতিবাচক পদক্ষেপ’ বলতে কি বিশ্ব সন্ত্রাসী হিসেবে আজহারকে ঘোষণা করা নিয়ে জটমুক্তি? জবাবে চিনা বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র বলেছেন, ‘‘হ্যাঁ, আমেরিকা এটা ভাল ভাবে জানে।’’ তবে এ ব্যাপারে বিশদে আর কিছু জানাননি তিনি।

প্রসঙ্গত, আজহারকে কালো তালিকাভুক্ত করতে গত সপ্তাহে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে একযোগে সরব হয় আমেরিকা, ব্রিটেন ও ফ্রান্স। এর আগে চিনা বাধায় মাসুদকে বিশ্ব সন্ত্রাসী হিসেবে ঘোষণা ফের ভেস্তে গিয়েছিল। ব্রিটেন ও ফ্রান্সের সমর্থন নিয়ে খসড়া প্রস্তাব পেশ করে আমেরিকা। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এহেন পদক্ষেপে অসন্তোষ প্রকাশ করে চিনের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র বলেন, ‘‘আমরা বর্তমান পরিস্থিতি জানি। জোর করে নিরাপত্তা পরিষদে এভাবে খসড়া প্রস্তাব পেশ করা গঠনমূলক পদক্ষেপ নয়। বাজে দৃষ্টান্ত তৈরি হয়েছে।’’ সংবাদসংস্থা পিটিআই সূত্রে এমনটাই জানা গিয়েছে।
 
প্রসঙ্গত, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আত্মঘাতী জঙ্গি হামলায় জড়িত মাসুদ আজহারই। এ হামলার পর ফ্রান্সই প্রথম দেশ, যারা রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে বিশ্ব সন্ত্রাসী হিসেবে মাসুদ আজহারের নাম অন্তর্ভুক্তি নিয়ে সরব হয়। এরপর এই ইস্যুতে ভারতের পাশে দাঁড়ায় আমেরিকা ও ব্রিটেনও। কিন্তু এ ইস্যুতে ফের আপত্তি তোলে চিন। আজহারকে বিশ্ব সন্ত্রাসী ঘোষণায় ‘টেকনিক্যাল সমস্যা’ রয়েছে, এই যুক্তি দেখিয়ে বেঁকে বসে চিন। এ নিয়ে গত ১০ বছরে ৪ বার মাসুদ আজহার ইস্যুতে পথের কাঁটা হয়ে রইল ড্রাগনের দেশ।