About Me

header ads

কর্তব্যরত চিকিৎসকের উপর আক্রমনের প্রতিবাদে আন্দোলনে রাজ্যের চিকিৎসকরা।

প্রসূতি মহিলার মৃত্যুর অভিযোগকে কেন্দ্র করে আগরতলা আই জি এমের এক চিকিৎসকের 'উপর হামলার ঘটনা ঘটে।  জানা গেছে, বর্তমানে আহত চিকিৎসক দীপঙ্কর দেবনাথের অবস্থা গুরুতর। জিবি হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছে। ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, বুধবার রাতে আইজিএম হাসপাতালে এক প্রসূতি মায়ের মৃত্যু হয়। ঐ সময় চিকিৎসার দায়িত্বে ছিলেন চিকিৎসক দীপঙ্কর দেবনাথ। প্রসূতি মহিলার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পরতেই বৃহস্পতিবার ভোর ৫টা নাগাদ চিকিৎসক দীপঙ্কর দেবনাথের উপর হামলা চালায় একদল দুষ্কৃতী । 'হামলায় গুরুতর আহত হন চিকিৎসক দীপঙ্কর দেবনাথ। একটা সময়ে ক্রমশ পরিস্থিতি ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করে। চিকিৎসক দীপঙ্কর দেবনাথকে মারতে মারতে সিটি সেন্টার পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া হয়। এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় পশ্চিম থানার পুলিশ এবং আহত চিকিৎসককে উদ্ধার করে জিবি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসক দীপঙ্কর দেবনাথের মাথায় গুরুতর চোট লেগেছে। পা ভেঙ্গে গেছে।
এই ঘটনার তিব্র নিন্দা জানিয়ে এবং অপরাধিদের কোঠর শাস্তির দাবি তুলে বৃহস্পতিবার রাজধানীর সকল সরকারি চিকিৎকরা দির্ঘ সময় আই জি এম হাসপাতালের সম্মুখে ধর্না সংগঠিত করেন। তারা জানান বিগত এক বছরে গোটা রাজ্যে প্রায় ১২ টি চিকিৎসক নিগ্রহের ঘটনা ঘটছে। কোথাও একটিও মামলায় অপরাধিদের শাস্তি হয়নি। বর্তমানে রাজ্যের সরকারি চিকিৎকরা নিরাপত্তায় ভোগছেন। তাই  অল ত্রিপুরা গভর্নমেন্ট ডক্টর এসোসিয়েশন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যত সময় পর্যন্ত অপরাধিদের শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে না ততসময় পর্যন্ত তারা হাসপাতালে রোগী দেখা ছাড়া কোথাও প্রাইভেট প্রেকটিস করবেন না। পাশাপাশি সেচ্ছায় রক্তদান শিবির এবং স্বাস্থ্য শিবিরের মত সামাজিক কর্মসূচি থেকেও তারা বিরত থাকবেন।

এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে আহত চিকিৎসককে দেখতে ছুটে গেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী সুদীপ রায় বর্মণ। তিনি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন। পাশাপাশি তিনি এও বলেন এঘটনার সঙ্গে যারা যারা যুক্ত আছেন তাদেরকে উপযুক্ত শাস্তি প্রদান করা হবে।