About Me

header ads

‘কংগ্রেস অপমান করছে ভারতীয় সেনাকে, ছি:’ মোদী!

বিদেশ কংগ্রেসের প্রধান স্যাম পিত্রোদা শুক্রবার বালাকোটের বিমান হামলা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। সত্যিই ওই হামলায় ৩০০ জঙ্গির মৃত্যু ঘটেছে কিনা তা জানতে চেয়েছেন তিনি। সংবাদসংস্থা এএনআইকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে পিত্রোদা বলেছেন, “নিউ ইয়র্ক টাইমস ও অন্যান্য সংবাদপত্রে আমি বিষয়টি নিয়ে পড়েছি। আমি এ ব্যাপারে আরেকটু জানতে চাই। আমরা সত্যিই কোথায় হামলা চালিয়েছিলাম, সত্যিই কি আমরা ৩০০ জনকে মেরেছি?”

পিত্রোদার অভিযোগ আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুসারে কেউ মারা যায়নি, অথচ ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের একাংশ বলছে যে ৩০০ জঙ্গি মারা গেছে। পিত্রোদা বলেন, “যদি আপনি বলেন ৩০০ জন মারা গেছে, তাহলে আমরা সে ব্যাপারে জানতে চাইব, সমস্ত ভারতীয়েরই বিষয়টি জানা উচিত। এদিকে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বলে চলেছে কেউ মারা যায়নি, ভারতীয় নাগরিক হিসেবে বিষয়টি আমার কাছে খারাপ লাগছে।”

এর অব্যবহিত পরেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী টুইটারে বিরোধী দলকে আক্রমণ করেন। তিনি বলেন, “পিত্রোদা যা বলেছেন তা সামরিক বাহিনীর পক্ষে অপমানজনক এবং তাদের ক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার শামিল।”

মোদী তাঁর টুইটে বলেছেন, “বিরোধীরা আমাদের বাহিনীকে বারবার আক্রমণ করছে। আমি ভারতবাসীর কাছে আবেদন জানাচ্ছি – তাঁরা যেন যেন বিরোধী নেতাদের বিবৃতি নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। এ ব্যাপারে এক গুচ্ছ টুইট করেছেন প্রধানমন্ত্রী।” বালাকোট বিমান হামলায় মৃতের সংখ্যা নিয়ে প্রশ্ন তোলার জন্য তাঁকে একহাত নিয়েছেন মোদী। ২৬-১১ মুম্বই হামলার প্রসঙ্গ তুলে পাকিস্তানের পক্ষ নিয়েছেন পিত্রোদা, এমন অভিযোগও করেছেন মোদী।
 
স্যাম পিত্রোদা এ ব্যাপারে তাঁর অবস্থান স্পষ্ট করে বলেছেন, “আমি একজন নাগরিক হিসেবে আমার প্রশ্ন রেখেছি এবং আমার ধারণা এ অধিকার আমার রয়েছে। আমি দলের তরফ থেকে কথা বলিনি, প্রশ্ন করেছি একজন নাগরিক হিসেবে। আমার জানতে চাওয়ার অধিকার রয়েছে, এর মধ্যে ভুল কী আছে?”

এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে পিত্রোদা ২৬-১১র মুম্বই হামলা নিয়ে বলেন, “যদি আটজন লোক এসে হামলা চালায়, সে জন্য গোটা দেশকে দায়ী করা উচিত নয়।” এর উত্তরে প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন. কংগ্রেসের সবচেয়ে “বিশ্বস্ত পথপ্রদর্শক” তাদের দলের তরফ থেকে পাকিস্তানের জাতীয় দিবস পালন শুরু করেছে।

পিত্রোদার মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে কংগ্রেস নেতা রণদীপ সুরজেওয়ালা টুইট করেছেন। তিনি এ বক্তব্যকে পিত্রোদার ব্যক্তিগত মন্তব্য বলেই জানিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি বলেছেন, কোনও একজনের ব্যক্তিগত মতামতকে ব্যবহার করছে বিজেপি।

সুরজেওয়ালা তাঁর টুইটে লিখেছেন, “ভারতের জাতীয় কংগ্রেস দ্ব্যর্থহীন ভাষায় জানিয়েছে – পুলওয়ামার জঙ্গি হামলা জাতীয় নিরাপত্তার ক্ষেত্রে মোদী সরকারের ব্যর্থতা এবং বালাকোটের বিমান হামলা বিমানবাহিনীর শৌর্যের উজ্জ্বল উদাহরণ। পাকিস্তানের  জৈশ-এ-মহম্মদ, লশকর-এ-তৈবা এবং অন্যান্য জঙ্গি সংগঠন তাদের অসদুদ্দেশ্য কখনওই চরিতার্থ করতে পারবে না।”