About Me

header ads

পাঁচ কোটি পরিবারকে বছরে ৭২,০০০ টাকা: রাহুল গান্ধী

শিয়রে শমন। ২০১৯ এর লোকসভার নির্বাচনী প্রচার তুঙ্গে। এই অবস্থায় বড় ঘোষণা করলেন কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি। সোমবারের সাংবাদিক বৈঠকে রাহুল বিস্তারিত জানালেন, কংগ্রেস ক্ষমতায় এলে কীভাবে বাস্তবায়িত হবে ন্যূনতম রোজগারের স্বপ্ন। মাসখানেক আগেই ছত্তিসগড়ের এক জনসভায় রাহুল বলেছিলেন, ক্ষমতায় এলে সবার জন্য ন্যূনতম রোজগার সুনিশ্চিত করা হবে। কীভাবে সেটা হবে, সোমবার সাংবাদিক সম্মেলনেই সেটাই দেখিয়ে দিলেন রাহুল।

রাহুল গান্ধী বলেন, কংগ্রেস ক্ষমতায় এলে দেশের ২০ শতাংশ দরিদ্র পরিবারের জন্য মাসে ১২ হাজার টাকা আয় সুনিশ্চিত করবে সরকার। তিনি বলেন, “দেশের ২০ শতাংশ মানুষকে বছরে ৭২,০০০ টাকা দেওয়া হবে।” এই টাকা তাঁদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি পৌঁছে যাবে বলেও জানান রাহুল। এই প্রকল্পটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘ন্যায়’। “শেষ পাঁচ বছরে দেশের মানুষের অনেক ভোগান্তি হয়েছে, এবার আমরা মানুষকে ন্যায় বিচার পেতে সাহায্য করব”, বললেন সনিয়া পুত্র।

দারিদ্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধ হিসেবে প্রকল্পটিকে বর্ণনা করেছেন রাহুল গান্ধী। সরাসরি মোদীকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, “দেশের প্রধানমন্ত্রী যদি সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিকে সাড়ে তিন লক্ষ কোটি টাকা দিতে পারে, আমরাও দেশের দরিদ্র মানুষকে তা দিতে পারি”।

যাঁদের আয় মাসিক ১২,০০০ টাকার কম, তাঁদের অর্থ সাহায্য দেওয়া হবে বলে ঘোষণা করেন রাহুল। কারও মাসিক আয় ৬ হাজার টাকা হলে, সরকার দেবে বাকি ৬ হাজার। কারও আয় মাসিক ১০ হাজার টাকা হলে, সরকার দেবে বাকি ২ হাজার টাকা। এই উপায়ে মাসে ন্যূনতম ১২,০০০ টাকা আয় নিশ্চিত করা হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের আমেঠি থেকে নির্বাচন লড়তে চলা রাহুল।
 
রাহুলের কথায়, “দেশের পাঁচ কোটি পরিবার, অর্থাৎ ২৫ কোটি মানুষ প্রকল্পের সুবিধা পাবেন।” প্রকল্পটির সব রকম পরিকল্পনাও তৈরি বলে জানিয়েছেন রাহুল। “দেশের অনেক অর্থনীতিবিদের সঙ্গে আলোচনা করেছি আমরা। এটি খুবই সুচিন্তিত, শক্তিশালী একটি প্রকল্প।”