About Me

header ads

“প্রতিরক্ষা বিষয়ক তথ্য গোপনীয়, সরকার নিতান্তই বোকা হলে তা প্রকাশ্যে আনে”

চলতি সপ্তাহের মাঝামাঝি প্রধানমন্ত্রী মোদী জাতির উদ্দেশে জানালেন দেশের প্রথম সফল স্যাটেলাইট বিরোধী অস্ত্র ‘মিশন শক্তি’-র কথা। শনিবার সেই মিশন শক্তি নিয়েই মোদীকে তোপ দাগলেন প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী এবং কংগ্রেস নেতা পি চিদম্বরম। বললেন, “সরকার বোকা হলে, তবেই একমাত্র এমন গোপনীয় তথ্য প্রকাশ্যে এনে বিশ্বাসঘাতকতা করে।

শনিবার চিদম্বরম টুইট করে বলেন, “কৃত্রিম স্যাটেলাইটকে ধ্বংস করার ক্ষমতা আজ থেকে বহু বছর আগেই ছিল। সরকার বিচক্ষণ হলে, তা গোপন রাখত। নিতান্তই বোকা, তাই প্রতিরক্ষা বিষয়ক গোপন তথ্য এভাবে প্রকাশ্যে আনে”।

বুধবার নরেন্দ্র মোদী জাতির উদ্দেশে জানিয়েছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, চিন এবং রাশিয়ার পরে ভারত চতুর্থ দেশ, যারা সফল ভাবে এই ‘মিশন শক্তি’ পরীক্ষা করল। মাত্র তিন মিনিটের মধ্যে বিজ্ঞানীরা ধ্বংস করতে সক্ষম হয়েছেন মহাকাশের বেশ কিছু কৃত্রিম স্যাটেলাইট। ভূ-পৃষ্ঠ থেকে ৩০০ কিলোমিটারের মধ্যে কোনও কৃত্রিম উপগ্রহ থাকলে তা গুঁড়িয়ে দেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে ভারতের কাছে। ‘মিশন শক্তি’ সফল হওয়ায় সুনিশ্চিত করা গিয়েছে তা। ঘোষণা করার সময় প্রধানমন্ত্রী বললেন, “এটি আমাদের কাছে খুবই গর্বের মুহূর্ত”।
 
লোকসভার ঠিক আগেই এমন ঘোষণার পেছনে সরকারের আসল উদ্দেশ্য নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী চিদম্বরম। তিনি বলেন, “নির্বাচনী প্রচারের মাঝে এই ঘোষণার মানে কী? এটা কি বিজেপির ডুবতে থাকা ভাগ্যকে খানিকটা তুলে ধরার জন্য নয়?”

বুধবার মোদীর ভাষণের পরেই একাধিক বিরোধী দল নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানায়, আদর্শ আচরণবিধি লঙ্ঘিত হচ্ছে। নির্বাচন কমিশন অবশ্য শুক্রবার জানিয়েছে আদর্শ আচরণবিধি লঙ্ঘিত হয়নি।

সম্প্রতি এনএসএসও-এর তরফে সদ্য প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী দেশের ক্রমবর্ধমান বেকারত্ব নিয়েও মোদীর কাছে জবাব চেয়েছেন চিদম্বরম। তিনি বলেন, “দেশের বেকারত্বের শতকরা হার ৭১। বিগত ৪৫ বছরে এটাই সর্বোচ্চ। মোদীর কাছে কোনও জবাব আছে”।