About Me

header ads

ঘণ্টায় ১৮০ কিমি গতিতে যাত্রা শুরু বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের!

শুক্রবার সকালে ঝড়ের বেগে দিল্লি স্টেশন থেকে বারাণসীর দিকে ছুটে গেল ভারতের প্রথম দ্রুত গতিশীল ইঞ্জিনবিহীন ট্রেন, বন্দে ভারত এক্সপ্রেস ওরফে ‘ট্রেন ১৮’, যেটি ন’ঘণ্টার রেলপথ অতিক্রম করবে মাত্র ৪৫ মিনিটে। যাত্রাপথের মাঝে কানপুর এবং এলাহাবাদ স্টেশনে ৪০ মিনিট করে দাঁড়াবে ট্রেনটি।

এদিন সকালে নিউ দিল্লি স্টেশন থেকে বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের যাত্রা শুরু করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। অনুষ্ঠানের শুরুতে কাশ্মীরে বৃহস্পতিবার জঙ্গী হানায় নিহত ৩৭ জন সিআরপিএফ জওয়ানকে স্মরণ করে দু-মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলার অবন্তীপোরা এলাকায় বৃহস্পতিবার দুপরে ভয়াবহ আইইডি (ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস) বিস্ফোরণে মৃত্যু হয়েছে সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের (সিআরপিএফ) অন্তত ৪০ জন জওয়ানের, যে সংখ্যা আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা।

ট্রেনটি তৈরি করতে খরচ হয়েছে ৯৭ কোটি টাকা। বন্দে ভারত এক্সপ্রেসে কোনো স্লিপার ক্লাস নেই। পুরোটাই চেয়ার কার। ইঞ্জিন ছাড়াই ঝড়ের গতিতে ছুটে যাবে এই ট্রেন, যা তৈরি করেছে চেন্নাইয়ের ইন্টেগ্রাল কোচ ফ্যাক্টরি। ভারতের দ্রুততম ট্রেনের তকমা পেয়েছে ‘ট্রেন ১৮’। ঘণ্টায় ১৮০ কিমি বেগে ছুটে যাওয়ার ক্ষমতা রয়েছে তার। গত সপ্তাহেই দিল্লি থেকে রাজস্থানের রেলপথে ট্রায়াল রান করা হয়েছে। তবে যাত্রী সহ এই ট্রেন সাধারণত ছুটে যাবে ঘণ্টায় ১৩০ কিমি গতিতে।অনুষ্ঠানের সময়  নরেন্দ্র মোদী বলেন, আমরা আপ্রাণ চেষ্টা করেছি, ভারতীয় রেলের পরিকাঠামো বদলানোর। যার মধ্যে ‘ট্রেন ১৮’ হল একটি উদাহরণ। রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল এদিন বলেন, মোদীজির আদেশে ‘ট্রেন ১৮’ এর মত আরও ১০০ টি ট্রেন বানানো হবে। ৩০ টি ইতিমধ্যে অনুমোদিত হয়েছে।
 
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মোদী জানান, রেল প্রকল্প এখন সর্বোচ্চ ছয় মাসের অনুমোদন পেয়েছে। এনডিএ সরকারের পরিচালনায় বাস্তবায়িত হচ্ছে একাধিক রেল প্রকল্প, গতি বাড়ার পাশাপাশি উন্নত হয়েছে গ্রাহক পরিষেবা।

১৭ ফেব্রুয়ারি থেকে সপ্তাহে পাঁচদিন দিল্লি থেকে বারাণসী যাবে বন্দে ভারত এক্সপ্রেস। এই ট্রেনের এক্সিকিউটিভ ভাড়া হলো ৩,৩১০ থেকে ৩,৫২০ টাকা। সর্বনিম্ন ভাড়া ১,৭৬০ থেকে ১,৮৫০ টাকা।