About Me

header ads

কড়া জবাব দিতে সেনাকে পূর্ণ স্বাধীনতা দিয়েছি: মোদী

বদলা নেওয়া হবেই, এমন ইঙ্গিতই শোনা গেল খোদ প্রধানমন্ত্রীর গলায়। কাশ্মীর জঙ্গি হামলার ঘটনায় “মোক্ষম জবাব” দেওয়া হবে বলে শুক্রবার নাম না করে পাকিস্তানকে হুঁশিয়ারি দিলেন নরেন্দ্র মোদী। কাশ্মীরের হামলায় প্রতিবেশী রাষ্ট্রকে “বিরাট মূল্য দিতে” হবে বলে সরব হয়েছেন মোদী। বদলা নেওয়ার জন্য সেনাকে পূর্ণ স্বাধীনতা দেওয়া হয়েছে বলে এদিন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। প্রসঙ্গত, পুলওয়ামায় আত্মঘাতী জঙ্গি হামলায় ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ানের মৃত্যুর ঘটনায় ক্ষোভে ফুঁসছে দেশ। বদলা নেওয়ার দাবি উঠছে বিভিন্ন মহলে।

শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, “জঙ্গি সংগঠনগুলি ও তাদের প্রভুরা বড় ভুল করল। এজন্য বিরাট মূল্য দিতে হবে তাদের। দোষীদের কাউকে ছাড়া হবে না, শাস্তি পাবেই।” প্রতিশোধ নেওয়ার প্রসঙ্গে মোদী বলেছেন, “কড়া জবাব দেওয়ার জন্য সেনাবাহিনীকে আমরা পূর্ণ স্বাধীনতা দিয়েছি…।”

নাম না করে এদিন পাকিস্তানকে নিশানা করে মোদী বলেন, “এসব করে প্রতিবেশী রাষ্ট্র আমাদের দেশে অস্থরিতা তৈরি করতে চাইছে। আমরা সকলে মিলে একজোট হয়ে এর মোকাবিলা করব। কাউকে রেয়াত করা হবে না।” একজোট হওয়ার কথা বলতে গিয়ে মোদী বলেছেন, “দেশের এই সময়ে আমাদের সকলকে একসঙ্গে মিলে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়তে হবে। রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে আমাদের এখন এর মোকাবিলা করতে হবে।”

মধ্য প্রদেশের ঝাঁসিতে এদিন একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “কী জবাব দেওয়া হবে, তা ঠিক করতে আমরা নিরাপত্তা বাহিনীর হাতেই সিদ্ধান্ত নেওয়ার ভার তুলে দিয়েছি। ষড়যন্ত্রকারীরা শাস্তি পাবেই। আমাদের প্রতিবেশী দেশ বোধহয় ভুলে গিয়েছে, এটা নতুন ভারত, যেখানে এখন নয়া রীতি-নীতি রয়েছে।” পাকিস্তানকে হুঁশিয়ারি দিয়ে মোদী আরও বলেছেন, আমাদের যেসব শত্রুরা পাকিস্তানকে সঙ্গ দিচ্ছে, তাদের বোঝা উচিত, কতটা ধ্বংসাত্মক পথকে তারা বেছে নিয়েছে। মোদী বলেছেন, “আন্তর্জাতিক মহল ভারতের পাশেই দাঁড়িয়েছে। গোটা দুনিয়া চায় সন্ত্রাসবাদের পান্ডাদের বিনাশ করতে।”