About Me

header ads

কলকাতায় গ্রেফতার জেএমবি জঙ্গি মণিরুল ইসলাম

আরও এক জেএমবি (জামাত মুজাহিদিন বাংলাদেশ) জঙ্গিকে গ্রেফতার করল কলকাতা পুলিশের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স (এসটিএফ)। শুক্রবার সন্ধেয় শিয়ালদহ স্টেশন থেকে মণিরুল ইসলাম নামে এক জেএমবি জঙ্গিকে গ্রেফতার করল এসটিএফ। বোধগয়া বিস্ফোরণের ঘটনায় মণিরুল জড়িত বলে অভিযোগ।

উল্লেখ্য, ক’দিন আগেই কেরালার মল্লাপুরম এলাকা থেকে আব্দুল মতিন নামে এক জেএমবি জঙ্গিকে গ্রেফতার করে এসটিএফ। মতিনকে জেরা করেই মণিরুলের হদিশ মেলে বলে খবর।

এসটিএফ সূত্রে জানা গিয়েছে, মুর্শিদাবাদের রঘুনাথগঞ্জের বাসিন্দা মণিরুল। শুক্রবার সন্ধে ৭টা ৪৫ মিনিট নাগাদ তাকে গ্রেফতার করে এসটিএফ। ২০১০ সাল থেকে মণিরুল জেএমবি-র সক্রিয় সদস্য ছিল বলে জানতে পেরেছে পুলিশ। ধৃত মৌলনা ইউসুফ, ইব্রাহিম, ইজাজদের পরিচিত বলে জানা গিয়েছে। মণিরুল মকিমনগর মাদ্রাসায় প্রায়শই যেত বলে এসটিএফ সূত্রে জানা গিয়েছে। জঙ্গিদলে স্থানীয়দের নিয়োগ করত মণিরুল। পাশাপাশি, তাদের মকিমনগর মাদ্রাসায় প্রশিক্ষণের জন্য পাঠাত মণিরুল।
 
ধৃত জেএমবি জঙ্গিকে আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ।

প্রসঙ্গত, ক’দিন আগেই কেরালার মল্লাপুরম থেকে ধৃত মতিনকে জেরা করেই মণিরুলের খোঁজ পায় পুলিশ। কে এই মতিন? এসটিএফ সূত্রে জানা গিয়েছে, আসামের বরপেটা জেলার বাসিন্দা মতিম। খাগড়াগড়ে বিস্ফোরণের জন্য শিমুলিয়া ও মকিমনগর মাদ্রাসায় যে ১৫ জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছিল, তাদের মধ্যে অন্যতম এই মতিন। ২০১০ সাল থেকে মতিন জেএমবি-র সঙ্গে যুক্ত বলে জানতে পেরেছেন তদন্তকারীরা। নাসিরুদ্দিন, মৌলানা ইউসুফ, সইদুল, জাহিদুলদের পরিচিত মতিন।

উল্লেখ্য, খাগড়াগড় বিস্ফোরণকাণ্ডে নাম জড়িয়েছে জেএমবি-র। এই বিস্ফোরণের তদন্তে নেমে রাজ্যে জেএমবি কার্যকলাপ সম্পর্কে জানতে পারেন গোয়েন্দারা।