About Me

header ads

রাজ্য রাজনীতিতে এখন প্রদ্যুৎ-সুদীপ নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে!

মঙ্গলবার একদা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি বর্তমান বিজেপি দল থেকে নির্বাচিত মন্ত্রিসভার সদস্য সুদীপ রায় বর্মন এর বাড়িতে বৈঠক করলেন প্রদ্যুৎ কিশোর দেব বর্মন। নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল প্রত্যাহার থেকে শুরু করে, মাধববাড়ি এলাকায় গুলি চালানোর ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের দাবিতে, উপজাতি ঐক্য মঞ্চের নামে বিজেপি এবং গণমুক্তি পরিষদ বাদে প্রায় বেশিরভাগ উপজাতি ভিত্তিক রাজনৈতিক দল, বিভিন্ন শাখার সংগঠনের একটি ফোরামে মিলিত হওয়ার প্রচেষ্টাকে এক প্রকার সার্থক রূপ দিয়েছেন প্রদ্যুৎ।

অন্যদিকে ডিডাব্লিউএস দপ্তরের এক অনুষ্ঠানে দপ্তর ও মন্ত্রীকে না জানিয়ে প্রশাসনে ব্ল্যাকশিপ আধিকারিকের দৌরাত্ম্যের বিষয়ে মুখ খুলেছিলেন সুদীপ। প্রজাতন্ত্র দিবসে মন্ত্রীরা বিভিন্ন জেলায় পৃথকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও অভিবাদন গ্রহণ করলেও সুদীপ তা থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখেন। 

সাধারণত মনে প্রশ্ন জাগে তাহলে কি সরকারের অভন্তরে কোথাও দূরত্ব তৈরী হয়েছে? বিভিন্ন বিষয়ে সুদীপের বক্তব্য তার ইঙ্গিত নয় কি?

কংগ্রেস দলে থাকতে আরও এক বিপরীত মেরুতে অবস্থান করা নেতা,বর্তমান বিজেপি দলের রামনগর কেন্দ্রের বিধায়ক সুজিত দত্তের বাড়িতে গিয়ে সকল জল্পনাকে উস্কে দিয়েছেন সুদীপ।

একদিকে প্রদ্যুৎ কিশোর দেববর্মন যখন নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল প্রত্যাহারের দাবি কে সামনে রেখে বিজেপি সরকারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তুলছে রাজ্যে, ৩০ জানুয়ারী বুধবার এডিসি এলাকায় তারই অঙ্গ হিসেবে ফোরামের বিশাল কর্মসূচি, ঠিক তার আগের দিন সুদীপ রায়বর্মনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের নামে বৈঠক যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক তথ্য বিজ্ঞ মহল। যদিও বিগত কয়েক মাসের রাজ্য রাজনীতির অভিজ্ঞতায় প্রদ্যুৎ কিশোর দেব বর্মন বিগত দিনের তুলনায় কংগ্রেস দলকে শক্তিশালী করতে, বিজেপি বিরোধী উপজাতি ভিত্তিক দল ও এক সময় কংগ্রেসের অভিমানী নেতাদের একত্রিত করার উদ্যোগ নিয়েছেন।